প্লাস্টিকের বোতলে জল পান করেন? বাঁচতে চাইলে আজই প্লাস্টিকের বোতলে জল খাওয়ার অভ্যাস ত্যাগ করুন – OnlineCityNews
Breaking News
Home / বাংলা হেল্‌থ / প্লাস্টিকের বোতলে জল পান করেন? বাঁচতে চাইলে আজই প্লাস্টিকের বোতলে জল খাওয়ার অভ্যাস ত্যাগ করুন

প্লাস্টিকের বোতলে জল পান করেন? বাঁচতে চাইলে আজই প্লাস্টিকের বোতলে জল খাওয়ার অভ্যাস ত্যাগ করুন

Advertisement

প্লাস্টিকের বোতল আমা’দের নিত্যদিনের স’ঙ্গে ওতোপ্রতভাবে জড়িয়ে গেছে।রোদের দুপুরে রাস্তার মাঝে কিংবা শিতের বিকেলে রেলওয়ে স্টেশনে কিংবা বাড়ির চার দেওয়ালের মধ্যেই তেষ্টা মানেই মানেই প্লাস্টিকের বোতল খুলে টুক করে দু-ঘোট জল…!!

দোকানের ঠান্ডা পানীয়র বোতল জমিয়ে তাতে জল রেখে ব্যবহার করি মাসের পর মাস। আর একটা বোতল যে কতবার ব্যবহার করি তার কোনো হিসেব থাকে না। কিন্তু জানেন কি, এই প্লাস্টিকের বোতল আপনার জীবনকে আস্তে আস্তে শেষ করে দিচ্ছে ? প্লাস্টিকের বোতলে জলপানের ক্ষ’তিকারক দিক গু’লি জানলে আপনি আঁতকে উঠবেন।

বিজ্ঞানীদের মতে, প্লাস্টিকের বোতলে দিনের পর দিন জল রাখলে তা থেকে এক ধরনের কেমিকেল ও ব্যাকটেরিয়া বেরিয়ে আসে যাএতটাই ক্ষ’তিকারক ‌যে আপনার শরীরের সবকিছু ওলটপালট করে দিতে পারে।দিনের পর দিন প্লাস্টিকের বোতলে জল রাখলে যে রাসায়নিক টি নির্গত হয় সেটি হল বিস্ফেনল(বিপিএ) যা আমা’দের শরীরের পক্ষে ভয়’ঙ্কর ক্ষ’তিকারক।

বিশেষজ্ঞদের মতে, এই বিস্ফেনল বা বিপিএ আমা’দের ‌যৌ’নজীবনে মা’রাত্ত্বক প্রভাব ফেলতে পারে। বিজ্ঞানী মেরিলিন গ্লেনভিলের দাবি, ওই বি’স্ফো’নল আমা’দের শুক্রা’ণু ও ডিম্বানু উৎপাদেনে প্রবল বাধার সৃষ্টি করে সাথে সাথে

দে’হে বিভিন্ন হরমনের ক্ষরণ অনিশ্চিত ও অনিয়মিত করে দেয়।এটি দে’হের এন্ডোক্রিন গ্লান্ডের ক্ষ’তি করে। এছাড়া ব্রেস্ট ক্যান্সার, হার্টের অসুখ ও জন্মগত শারীরিক ত্রুটির ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা ররয়েছে এই বিস্ফেনলের।

গবেষণার রিপোর্ট অনুযায়ী বিস্ফেনল ছাড়াও প্লাস্টিক বোতলের এরও একটা ভয়’ঙ্কর দিক হল ব্যাকটেরিয়া। বারবার প্লাস্টিক বোতল ব্যবহার করলে তাতে এমনসব ব্যাকটেরিয়া থাকতে পারে ‌যা টয়লেটের সিটেও থাকে না। ওইসব জী’বাণু ৬০ শতাংশই মানুষকে অ’সুস্থ করে দিতে পারে।

Advertisement
Advertisement

Check Also

যেভাবে নাভিতে দু-ফোটা তেল দিয়েই আপনি সারিয়ে তুলতে পারবেন আপনার সকল গোপন দূর্বলতা…

Advertisement Advertisement দৌড়-ঝাঁপ ভরা জীবনে অনিয়মের জেরেই আমা’দের শরীরে দানা বাঁধছে বিভিন্ন রকম রোগ। সময়ের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!