Home / করোনা নিউজ / করো’না ভাই’রাস থেকে বাঁচতে যা করবেন

করো’না ভাই’রাস থেকে বাঁচতে যা করবেন

Advertisement

চীনের উহান শহর থেকে শুরু হওয়া ক’রোনা ভাই’রাস ইতো’মধ্যে সারাবি’শ্বে ছড়িয়ে পড়েছে। বাংলাদেশের ৬৪ জে’লায়ও এ ভাই’রাস সংক্রমণ শুরু করেছে। দেশে এখন পর্যন্ত ক’রোনা ভা’ইরাসে আ’ক্রান্ত হয়ে মা’রা গেছে ২০৬ জন।

এ পর্যন্ত আ’ক্রান্ত হয়েছেন ১৩,১৩৪ জন। তাই এ ম’হামারী ভা’ইরাস থেকে মুক্তি পেতে হলে বেশকি’ছু মেনে চলতে হবে আপ’নাকে। তাহলেই কেবল আপনি এ ভা’ইরাস থেকে নিজে, পরিবার ও আ’পনার কা’ছের সবাইকে সুস্থ রাখতে পারবেন। তাহলে চলুন জেনে নেই কিভাবে এ ভা’ইরাস থেকে বাঁচতে আমা’দের করণীয় কি?

১। ঘর থেকে বের না হওয়া:- এ ভাই’রাস থেকে বেঁচে থাকতে হলে সর্ব প্রথম আপনাকে অযথা ঘরের বাইরে যাওয়া যাবে না। দেশের স্বাস্থ্য অধি’দপ্তদের দেয়া সকল নির্দেশানা মেনে চলতে হবে। প্রয়ো’জনে বাইরে বের হলে মা’স্ক পরুন।

২। বারবার হাত ধোয়া:- ঘন ঘন নির্দিষ্ট সম’য়ের ব্যবধানে হাত ধুতে হবে। হাত ধোবেন আই’সো’প্রোপাইল অ্যাল’কোহল মেশানো হ্যান্ড’ওয়াশ বা সাবান দিয়ে।

৩। লোকসমাগম এড়িয়ে চলুন:- বিদেশ ভ্রমণ ও প্রবাস থেকে আসা লো’কজনের সঙ্গও এড়িয়ে চলুন। অ’ন্যের থেকে অন্তত ৩ ফিট দূর’ত্বে থাকুন। যেখানে সেখানে কফ বা থুতু ফেলা ব’ন্ধ করুন।

৪। গণপরিবহন: গণপ’রিবহন এড়িয়ে চলুন। বাস, ট্রেন কিংবা অন্য যেকোন ধরণের পরিবহনের হাতল কিংবা আসনে করো’নাভা’ইরাস থাকতে পারে। সেজন্য যে কোনো পরি’বহনে চলাফে’রার ক্ষেত্রে অবশ্যই মাস্ক ব্যব’হার করা এবং সেখান থেকে নেমে ভালোভাবে হাত পরি’ষ্কার করা।

৫। কর্ম’ক্ষেত্র:- অফিসে একই ডেস্ক এবং কম্পিউটার ব্যবহার করলেও ভা’ইরাস সংক্র’মণের ঝুঁকি থাকে। হাঁচি-কাশি থেকে ক’রোনাভা”ইরাস ছড়ায়। যে কোনো জায়গায় করো’নাভা’ইরাস কয়েক ঘণ্টা এমনকি কয়েকদিন পর্যন্ত সক্রিয় থাকতে পারে। অফিসের ডেস্কে বসার আগে কম্পিউটার, কিবোর্ড এবং মাউস পরি’ষ্কার করুন। বাংলা’দেশে বিভিন্ন ব্যাংক এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানে যখন গ্রাহকরা যায় তখন অ’নেকেই একটি কলম ব্যবহার করেন।

ক’রোনা’ভাইরা’সে আ’ক্রান্ত কোনো ব্যক্তি যদি সে কলম ব্যব’হার করে তাহলে পরবর্তী ব্যবহারকারীদেরও করো’না সংক্র’মণের ঝুঁকি থাকে। সেজন্য নিজের কলম আলাদা করে রাখতে পারেন। এতে সংক্রম’ণের ঝুঁকি কমবে। এছাড়া টাকা উ’ত্তোলনের জন্য যে এটিএম বুথ ব্যবহার করা হয়, সেখান থেকেও সংক্রম’ণ হতে পারে।

সে বিষয়ে সতর্কতা অব’লম্বন করুন। ভা’ইরাস সংক্রমণের ক্ষেত্রে আরেকটি জায়গা হতে পারে বাড়ি কিংবা অফিসের লিফট। লিফট ব্যবহারে’র সময় নি’র্ধারিত ফ্লোরে যাবার জন্য লিফটের বাটন অনেকে ব্যবহা’র করছেন। বিভিন্ন অফিস ভবনে প্রতিদিন শত-শত মানুষ লিফট ব্যবহার করছেন। এদের মধ্যে কেউ যদি ক’রোনাভাই’রাসে আক্রান্ত রোগী থাকেন এবং সে লিফটে’র বাটনে অন্যদের আঙ্গুল গেলেও সংক্রম’ণের সম্ভাবনা থাকে। তাই যতটা সম্ভব লিফট এড়িয়ে চলা’ফেরা করুন।

৬। টাকা-পয়সা: ব্যাংক নোট বা টাকা’য় নানা ধরনেণের জীবাণুর উপস্থিতি শনাক্ত করার ঘটনা নতুন নয়। এমনকি ব্যাংক নোটের মাধ্যমে সংক্রা’মক নানা রোগ ছড়িয়ে পড়ার সম্ভা’বনা রয়েছে। সে ক্ষেত্রে টাকা-পয়সার ব্যবহার সাবধানে করবেন। হাতে গ্লা’ভস পড়ে টাকা আদান-প্রদান ক’রুন।

৭। করমর্দন ও কো’লাকুলি:- করমর্দন এবং কো’লাকুলির মাধ্যমেও করো’নাভা’ইরাস ছড়াতে পারে। আপনি যে ব্যক্তির সাথে কো’লাকুলি এবং করমর্দন করছেন, তিনি যদি ক’রোনা’ভা’ইরাসে আ’ক্রান্ত হন তাহলে সেটি অন্যের দেহে সংক্র’মিত হতে পারে। এজন্য করমর্দন এবং কো’লাকুলি থেকে বিরত থাকুন।

Advertisement
Advertisement

Check Also

দেশে করোনার আরো নতুন ৫ উপসর্গ, জানুন সেগুলো কি কি?

Advertisement Advertisement আনিস সাহেব (ছ’ন্দ নাম) অফিস থেকে ফি’রেই ক্লা’ন্তি বো’ধ কর’ছিলেন। অফিস থেকে ‘ফিরলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!