মাটি খুড়তে গিয়ে প্রায় তিন কোটি টাকার সো’না পেলেন! রাতারাতি ভা’গ্য পাল্টে গেল এই পরি’বারের – OnlineCityNews

মাটি খুড়তে গিয়ে প্রায় তিন কোটি টাকার সো’না পেলেন! রাতারাতি ভা’গ্য পাল্টে গেল এই পরি’বারের

কপাল ভাল থাকলে কী না হয়!‌ ভাগ্য যদি সঙ্গী হয়, তাহলে ছাইয়ের গাদাতেও খোঁজ মেলে বহুমূল্য রত্নের। আবার কপাল ভাল না থাকলে অজান্তেই খোয়া যায় বহমূল্য সম্পদ। তবে এক্ষেত্রে গল্পটা কপাল ভাল থাকার।

ভাগ্য এতটাই সুপ্রসন্ন যে একরাতে সাড়ে তিন কেজি সোনা মাটির তলা থেকে উদ্ধার করল একটি পরিবার। পরিবারটি নিজেদের গুপ্তধন আবিষ্কারক বলতেই ভালবাসে। তাঁরাই ভিক্টোরিয়ার তারনাগুলা এলাকায় মাটির তলা থেকে পেয়েছেন প্রায় সাড়ে তিন কেজি সোনা।

মা’র্কিন ডলারের হিসাবে যার মূল্য প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ্য ইউএসডি। মানে ভারতীয় অর্থের এই সোনার দাম প্রায় তিন কোটি টাকার সমান। এককথায়, কাঁচা সোনার নাগেট বা তাল তাঁদের ভাগ্য একরাতের মধ্যেই একেবারে পাল্টে দিয়েছে।

উদ্ধারকারীরা জানিয়েছেন, যেখানকার মাটি খুঁড়ে তাঁরা সোনা পেয়েছেন, সেখানে বাইরে থেকে বোঝার উপায় ছিল না, এখানে জমে আছে তালতাল সোনা। তাই সোনা সন্ধানের কাজটা ছিল ভীষণ আকর্ষণীয়। এখন এই সোনার ৩০ শতাংশ অর্থও যদি ওই পরিবার পান, তাহলে তাঁদের ভালো ভাবে ভবিষ্যৎ কে’টে যাবে বলে মনে করছেন তাঁরা।

তাঁরা জানিয়েছএন, এতবছর ধরে এই মাটিতে সোনা জমা ছিল, কিন্তু কেউ সেটা খুঁজে দেখেননি। তাঁরাই প্রথম এটির সন্ধান পেলেন। ছোট ছোট সোনার তাল, মিলিয়ে প্রায় পুরোটার ওজন হবে সাড়ে তিন কেজির মতো। সেটাই তাঁরা উদ্ধার করেছেন মাটি থেকে।

তাঁরাই প্রথম, যাঁরা এককভাবে এই বিশাল পরিমাণ সোনা মাটির তলা থেকে উদ্ধার করলেন। তবে এখনও তাঁরা আশাবাদী নিজেদের মেধা ও বুদ্ধি কাজে লাগিয়ে এভাবে তাঁরা আরও সোনা উদ্ধার করতে পারবেন। ভবিষ্যতে আরও সোনা তাঁদের হাতে উঠবে, মনে করছেন তাঁরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *