Home / সারা দেশ / ডিবি পরিচয়ে মানুষের সাথে যা যা করত ইরফান বাহিনী

ডিবি পরিচয়ে মানুষের সাথে যা যা করত ইরফান বাহিনী

Advertisement

নৌবাহিনীর কর্মক’র্তাকে মা’রধরের ঘটনায় মা’মলা হওয়ার পর ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছে’লে ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ইরফান সেলিমসহ তাঁর দেহরক্ষী জাহিদুল ইস’লামকে গ্রে’প্তার করেছে র‌্যা’­ব।

বিদেশি ম’দ পানের জন্য ছয় মাস ও বাসায় অ’বৈধ ওয়াকিট’কি রাখার দায়ে আরও ছয় মাসসহ এক বছর করে এই দুজনকে কারাদ’ণ্ড দিয়েছেন র‌্যা’­বের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। আজ সোমবার দুপুরে চকবাজারে হাজী সেলিমের বাসায় অ’ভিযান করে র‌্যা’­ব।

র‌্যা’­ব জানিয়েছে, সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে এবং একজন ফৌজদারি অ’প’রাধে অ’ভিযু’ক্ত আ’সামি সাংসদ হাজী সেলিমের ছে’লে ইরফান সেলিমের বাসায় অ’ভিযান পরিচালিত হয়েছে। এ সময় সাংসদ বাসায় ছিলেন না।

সন্ধ্যায় রেবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ বলেন, অ’ভিযানের সময় বাসা থেকে দুটি বিদেশি পি’স্তল, ইয়াবা, বিদেশি ম’দ, ১০ ক্যান বিয়ার, হ্যান্ডকাপ, অনুমোদনহীন ৩৮টি ওয়াকিট’কি ও সেল উ’দ্ধার করা হয়েছে।

এর মধ্যে ওয়াকিট’কি রাখা ও বিদেশি ম’দ পানের কারণে র‌্যা’­বের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাৎক্ষণিক ভাবে গ্রে’প্তার দুজনকে দুটি মা’মলায় ছয় মাস করে এক বছরের কারাদ’ণ্ড দিয়েছেন। অ’ভিযানে এক জোড়া হ্যান্ডকাফও উ’দ্ধার করেছে করেছে র‌্যা’­ব। তাদের ধারণা, এই হ্যান্ডকাফ পরিয়ে হাজী সেলিমের লোকজন র‌্যা’­ব ও ডিবি পরিচয় দিয়ে মানুষকে ধরে নিয়ে যেত।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কর্মক’র্তারা জানান, ওই বাসায় একটি ড্রোন, রাউটার, একটি ভা’’ র্চুয়াল প্রাইভেট সার্ভা’’ র বা ভিপিএস পাওয়া গেছে। এই ভিপিএস দিয়ে মূলত তার পুরো নেটওয়ার্কে নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ স্থাপন করতো, যাতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের ট্র্যাক করতে না পারে। সাধারণত ভিপিএস ব্যবহারের অনুমোদন পায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বা নিরাপত্তায় নিয়োজিত বিভিন্ন সংস্থা। বিটিআরসি এই অনুমোদন দেয়। তবে হাজী সেলিম কোনও অনুমোদন নেননি।

হাজী সেলিমের বাসায় কন্ট্রোল রুমঃ পুরান ঢাকা এলাকা ২৪ ঘণ্টা মনিটরিং করতে হাজী সেলিমের বাসায় গড়ে তোলা হয়েছে আধুনিক রেডিও ফ্রিকোয়েন্সিসহ অ’ত্যাধুনিক কন্ট্রোল রুম। যেখানে ছিল আধুনিক ভিপিএস (ভা’’ র্চুয়াল প্রাইভেট সার্ভা’’ র), ৩৮টি ওয়াকিট’কি, ড্রোনসহ বিভিন্ন ডিভাইস। রাষ্ট্রের অ’ত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের (ভিভিআইপি) নিরাপত্তায় নিয়োজিত এলিট বাহিনীর কাছে যেসব সরঞ্জাম থাকে, সেরকম সরঞ্জাম পাওয়া গেছে এখানে।

র‌্যা’­ব কর্মক’র্তারা বলেন, হাজী সেলিমের আট তলা ভবনের তিন ও চার তলা থেকে এসব সরঞ্জামসহ তারা অ’বৈধ একটি বিদেশি পি’স্তল ও একনলা ব’ন্দুক জ’ব্দ করেছেন। কালো ৩৮টি ওয়াকিট’কি উ’দ্ধার করা হয়েছে। এসব ওয়াকিট’কির প্রতিটি চার কিলোমিটার পর্যন্ত এলাকা কাভা’’ র করতো। এ ধরনের ওয়াকিট’কি বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি’র অনুমোদন ছাড়া ব্যবহার করা নিষেধ।

হাজী সেলিমের ছে’লের বাসায় টর্চার সেলঃ ইরফান সেলিমের ভবনের পাশেই একটি টর্চার সেল পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে রেব। র‌্যা’­ব কর্মক’র্তারা জানান, আসিক টাওয়ারের ১৬ তলার একটি কক্ষকে নিজের মতো করে সাজিয়েছেন ইরফান সেলিম। সেই রুমটিকেই টর্চার সেল হিসেবে গড়ে তুলেছেন তিনি।

আশিক বিল্লাহ জানান, ইরফান সেলিমের ভবনে একটি টর্চার সেল পাওয়া গেছে। সেখান থেকে হ্যান্ডকাপও উ’দ্ধার করা হয়েছে। বেলা সাড়ে ১২টার সময় তারা অ’ভিযু’ক্তের বাসা এবং অ’ভিযু’ক্তকে শনাক্ত করতে সক্ষম হন। এরপর তারা সাংসদ হাজী মোহাম্ম’দ সেলিমের দ্বিতীয় ছে’লে ইরফান মোহাম্ম’দ সেলিম এবং তার দেহরক্ষী জাহিদুল ইস’লামকে গ্রে’প্তার করতে সক্ষম হন।

এর আগে ২৫ অক্টোবর রাতে ঢাকা-৭ আসনের এমপি হাজী মোহাম্ম’দ সেলিমের ‘সংসদ সদস্য’ লেখা সরকারি গাড়ি থেকে নেমে নৌবাহিনীর কর্মক’র্তা ওয়াসিফ আহমেদ খানকে মা’রধর করা হয়। রাতে এ ঘটনায় জিডি হলেও ২৬ অক্টোবর ভোরে হাজী সেলিমের ছে’লেসহ ৭ জনের বি’রুদ্ধে ধাণমন্ডি থা’নায় মা’মলা করেন ওয়াসিফ।

মা’রধর ও হ’’ ত্যাচেষ্টার অ’ভিযোগে মা’মলা’টি করা হয়েছে। আ’সামিরা হলেন, ইরফান সেলিম, এ বি সিদ্দিক দীপু, জাহিদ, মীজানুর রহমান ও অ’জ্ঞাতনামা আরও দুই/তিনজন।

মা’মলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ইরফানের গাড়ি ওয়াসিমকে ধাক্কা মা’রার পর নৌবাহিনীর কর্মক’র্তা ওয়াসিম সড়কের পাশে মোটরসাইকেলটি থামান এবং গাড়ির সামনে দাঁড়ান। নিজের পরিচয় দেন। এরপরই গাড়ি থেকে কয়েকজন বের হয়ে ওয়াসিমকে কিলঘুষি মা’রেন এবং তার স্ত্রী’কে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন। তারা মা’রধর করে ওয়াসিমকে র’ক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে যান।

Advertisement
Advertisement

Check Also

চাঁদপুর টু কক্সবাজার চালু হচ্ছে বিআরটিসি এসি বাস

Advertisement চাঁদপুর টু কক্সবাজার চালু হচ্ছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের বিআরটিসি এসি বাস। আগামি ২ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!