Home / সারা দেশ / বাবা হারা অসহায় ২ শিশুকে নিজ বাসায় ফেরাতে মধ্যরাতে বসল হাইকোর্ট, অতঃপর…

বাবা হারা অসহায় ২ শিশুকে নিজ বাসায় ফেরাতে মধ্যরাতে বসল হাইকোর্ট, অতঃপর…

Advertisement

টেলিভিশনে টকশো দেখে মধ্যরাতে আ’দালত বসিয়ে হা’ইকো’র্টের একটি বেঞ্চ আ’দেশ দেয়ার পর সা’বেক অ্যা’টর্নি জে’নারেল কে এস নবীর দুই না’তিকে বা’সায় দিয়ে এসেছে পু’লিশ।







শনিবার রাতে এ’কাত্তর টি’ভিতে শিশু অ’ধিকার নিয়ে এক আলো’চনায় উঠে আসে, কেএস নবীর দুই না’তিকে বাসায় ঢু’কতে দিচ্ছেন না তা’দের চাচা।







ওই আ’লোচনায় উপস্থিত আই’নজী’বী মন’জিল মোরসেদ বলেন, একাত্তর জা’র্নালের একটা চ্যাপ্টার ছিল শিশু অধিকার নিয়ে। সেটাতে আমি যু’ক্ত ছিলাম।







ওই টক’শো’তে আলো’চনায় আসে যে সা’বেক অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যা’রিস্টার কে এস নবীর দুই নাতিকে বা’সায় ঢুকতে দি’চ্ছেন না তাদের চাচা।







‘তখন আমি বললাম- এটা তো মান’বাধি’কার ল’ঙ্ঘন। উনি যেহেতু আ’ইনজী’বী, উনার তো এটা আরও ভালো করে জানার কথা। তাছাড়া পুলি’শও তাদের দা’য়িত্বটা নাকি সঠিকভাবে পালন করেনি।







থা’নায় গিয়ে ফে’রত আসতে হয়েছে শিশু দু’টির। থা’না থেকে বলে’ছে কো’র্টে যেতে। এ কথা শোনার পরই বো’ধ হয় টক’শোর শেষ দিকে বি’চার’পতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমানের আদা’লত একটি স্বতঃপ্রণো’দিত রুল ই’স্যু করে ধান’মণ্ডি থা’নাকে নি’র্দেশ দেয় যে, এ’খনি ওই বাসায় শিশু দুটির থাকার ব্যবস্থা করতে এবং তাদের নিরা’পত্তা নি’শ্চিত করার জন্য।’







পরে সু’প্রিম’কো’র্ট থে’কে ধানমণ্ডি থা’নার ওসির স’ঙ্গে যেগাযোগ করা হলে পু’লিশ শিশু দুটির থাকার ব্যবস্থা করে দেয় এবং নি’রাপ’ত্তা নিশ্চিত করে।







সাবেক অ্যা’টর্নি জে’নারেল কে’এস ন’বীর দু’ই ছে’লে। বড় ছেলে কা’জী রেহান নবী সুপ্রি’ম কোর্টের আই’নজী’বী। ছোটো ছেলে সিরাতুন নবী গত ১০ আ’গস্ট মা’রা যান। তার দুই ছেলেকেই বা’ড়িতে ঢুকতে দি’চ্ছিলেন না তাদের চাচা কা’জী রে’হান নবী।







এ বিষ’য়ে ধানমণ্ডি থা’নার ওসি ইকরা’ম আলী মিয়া বলেন, আ’ম'রা খুব সু’ন্দরভা’বে দুই শিশু’কে রাত দেড়’টার দিকে তাদের বা’সায় পৌঁ’ছে দি’য়ে এসে’ছি।






Advertisement
Advertisement

Check Also

আর ভ্যান চালাবে না শিশু শম্পা, পরিবারের সব দায়িত্ব নিলেন প্রধানমন্ত্রী

Advertisement জামালপুরে ভ্যা’নচালক শি’শু শম্পার অ’সুস্থ বাবা’র চিকি’ৎসা ও তার প’রিবারের সব দায়িত্ব নিয়ে’ছেন প্রধানমন্ত্রী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!