অবশেষে ফাঁ’সির সেল থেকে যে সুখবর পেলেন স্বা’মী হ’ত্যা’ মা’ম’লার আ’সা’মি মিন্নি – OnlineCityNews

অবশেষে ফাঁ’সির সেল থেকে যে সুখবর পেলেন স্বা’মী হ’ত্যা’ মা’ম’লার আ’সা’মি মিন্নি

আয়েশা সিদ্দি’কা মি’ন্নি। ছিলেন স্বামী’ রিফাত শরী’ফ হ’ত্যা মা’ম’’লার স্বা’ক্ষী। পু’লি’শি ত’দ’ন্তে হয়ে গে’লেন আ’সামি। গ্রে’’প্তারও করা হয়’ তাকে। এর’পর আ’বার হা’’ইকোর্ট ‘থেকে জা’মি’নে মু’ক্তি ‘মেলে তা’র। এ বার মৃ’ত্যুদ’’ণ্ডে’র রায় ঘো’ষণা হ’লো তার বি’রু’দ্ধে।







রা’য়ে মিন্নিকে এ হ’ত্যা’কা’ণ্ডের মা”স্টার’মা’ইন্ড হি’সেবে চি’হ্নি’ত করে’ছেন আ’দা’লত। ফলে আ’বারও তার স্থা’ন হলো কা’রাগা’রে। তাও আবা’র ক’ন’ডে’ম সে’লে। এদি’কে মি’ন্নির এই রা’ নি’য়ে বি’ভি’ন্ন মহ’লে চলছে আলো’চনা।







মিন্নি কি আ’সলেই অ’পরা’ধি? তার কি স’ত্যিই ফাঁ’সি হবে? নাকি উচ্চ আ’দা’লতে তি’নি খা’লাস বা কম সা’জা ভো’গ কর’বেন? এ রকম না’নান প্র’শ্নের মধ্যে উঠে এসেছে অসং’খ্য অ’জানা তথ্য।







এদি’কে আয়ে’শা সি’দ্দিকা মি’ন্নির ফাঁ’সি’র রা’য় কা’’র্যকর নিয়ে দেখা দি’য়েছে ধোঁ’য়া’শা। বিভিন্ন’ সং’বাদ মাধ্যম সূত্রে’ এবং তথ্যে দেখা গে’ছে- দেশে আ’জ প’র্যন্ত কোনো নারী আ’সা’মির ফাঁ’সি কা’র্যকর’ হয়নি!







ফ’লে মি’ন্নির জ’ন্য এটি এক’টি সুখ’বর বটে। একা’ধিক গণ’মাধ্য’ম কা’রা সূত্রের বরাত দি’য়ে জা’নিয়ে’ছে, কা’রা’গা”র’গুলো’তে ফাঁ’সি’র দ’ণ্ডপ্রা’প্ত নারী’দের মধ্যে’ কেউ’ কেউ’ ১০-১৫ ব’ছর ধরে ক’ন’ডে’ম সে’লের বা”সি’ন্দা।







দেশে বহু পুরুষ আ’সা’মির ফাঁ’সি কা’র্যকর হ’লেও কো’নো না’রী আ’সা’মি’র ফাঁ’সি কা’র্য’কর হ’য়েছে, এম’ন ত’থ্য পা’ওয়া যায়নি।এবি’ষ’য়ে গণ’মাধ্য’মকে এক কা’রার’ক্ষী জা’নান, তিনি ২৮ বছ’র ধরে চা’করি করছেন,







আজ পর্য’ন্ত কো’নো নারী আ’সা’মির ফাঁ’সি হয়ে’ছে, এমন কথা তি’নি শো’নেননি। ফাঁ’সি’র দ’ণ্ডপ্রা’’প্ত নারী আ’সা’মি’দের ম’ধ্যে সবাই হ’ত্যা’র দা’য়ে ‘দ’ণ্ডি’ত হয়ে’ছে বলে কা’রা সূ’ত্রে জানা গেছে।







কল’হের জে’র ধ’রে নিজ পরি’বারের কো’নো সদ’স্যকে হ’ত্যা’র দা’য়েই ফাঁ’সি’র দ’ণ্ড পে’য়েছে এদের বে’শির ভাগ। কা’রা সূত্র জানায়, প্রতি’টি ক’নডে’ম সে’ল কম’বেশি ১০ হা’ত দৈ’র্ঘ্য ও ছ’য় হাত প্র’স্থে’র হয়।







প্রতি সে’লে তিন-চারজন করে ফাঁ’সির আ’সা’মিকে রা’খা হয়। প্র’তি সে’লে গ্রি’লঘে’রা বা’রা’ন্দা রয়েছে। ওই বা’রান্দা’তেই তা’দের হাঁ’টার সু’যোগ মে’লে। দিন-রাত ২৪ ঘ’ণ্টাই তাদের থাক’তে হয় সে’লে’র ভেতর ও বা’রা’ন্দায়।







এক কা’রা কর্মক’র্তা জা’নান, প্রতি’দিন দুপু’রে গো’স’ল করার জন্য তা’দের বের হতে দে’ওয়া হয়। গো’স’লের আগে সে’লের আশ’পাশে ১৫-২০ মি’নিট হাঁ’টার সু’যোগ দেওয়া হয়। এভা’বেই মা’সের পর মা’স, ব’ছরের পর ব’ছর পে’রিয়ে যা’চ্ছে তাদের।







ফাঁ’সি’র’ দ’’ণ্ডপ্রা’প্তরা মা’সে এক দি’ন সু’যোগ পায় তা’দের আ’ত্মীয়-স্বজ’নের স’ঙ্গে দেখা করার। ত’খন তা’রা সে’ল থেকে বেরিয়ে কা’রা’গা’রের গেটে স্ব’জ’নদের স’ঙ্গে দে’খা করে। সূ’ত্র জা’নায়, ফাঁ’সি’র দ’ণ্ড’প্রা’প্ত’দের জন্য ব’রা’দ্দ রয়েছে এক’টি করে থা’লা,







বা’টি ও ক’ম্বল। এ’র বাইরে আর কোনো ধর’নের সু’যো’গ-সু’বিধা নেই। এ’ক হিসাবে দেখা গেছে, স্বাধীন’তার পর থেকে শতা’ধিক না’রীর ফাঁ’সি’র আ’দেশ হয়ে’ছে। কি’ন্তু আ’জ পর্য’ন্ত কো’নো না’রীর ফাঁ’সি কা’র্যক’র হয়’নি। তা’দের মধ্যে অনে’কেই দীর্ঘ’দিন কা’রা ভো’’গ ক’রার পর বে’রিয়ে গেছে, কেউ কে’উ মা’রা গে’ছে, কা’রো কা’রো আ’পি’লে শা’স্তি ক’মেছে।







এদিকে ২০০৭ সালে কা’শিম’পুরে এ’কমাত্র ম’হিলা কা’রাগা’র উদ্বো’ধন করা হয়। দেশের প্র’তিটি কা’রাগা’রে ফাঁ’সির ম’ঞ্চ থাক’লেও সেখা’নে কো’নো ফাঁ’সির ম’ঞ্চ নে’ই। জানা গেছে, অ’তী’তে কো’নো নারী আ’সা’মির ফাঁ’সি কা’র্যকরের রেক’র্ড না থা’কায় ফাঁ’সির ম’ঞ্চ বা’নানো হয়নি।







কা’রাগা’রে ২২ বছর ধরে চা’করি করেন এমন এক কর্ম’ক’র্তা জানান, নিয়’মানুযা’য়ী ফাঁ’সি’র আ’সা’মি’রা সর্বশে’ষ সু’যোগ হিসেবে রাষ্ট্র’প’তির কাছে ক্ষ’মা’ প্রা’র্থনা কর’তে পারে। রা’ষ্ট্রপতি তা’দের ক্ষ’মা না কর’লে ফাঁ’সি থে’কে বাঁ’চার কো’নো সু’যোগ নেই। তবে আ’জ প’র্যন্ত কো’নো না’রীর আ’বেদন রা’ষ্ট্রপ’তির কা’ছে গেছে, এমন খব’রও তিনি শো’নেননি।







উল্লেখ্য, বর্তমানে দেশে ৪৯ জন নারী ফাঁ’সি’র’ দ’ণ্ড মা’থা’য় নিয়ে বিভি’ন্ন কা’রা’গা’রের ক’’নডে’ম সে’লের বা’সিন্দা। ফাঁ’সি’র দ’ণ্ড’প্রা’প্ত’দের থাকার এই সে’লে’র স’র্বশেষ বা’সিন্দা হয়ে’ছেন বরগুনার আয়েশা সি’দ্দিকা মিন্নি। গত’কাল বুধ’বার রি’ফাত শরীফ হ’ত্যা’ মা’ম’লার রা’য় ঘো’ষণার পর মি’ন্নিকে বর’গুনা কা’রাগা’রে নিয়ে যা’ওয়া হয়েছে।







এই কা’রাগা’রে আর কোনো নারী ফাঁ’সির আ’সা’মি না থা’কায় তিনি একাই হ’য়েছেন ক’ন’ডে’ম সে’লের বাসি’ন্দা। ব’রগুনা কা’রাগা’রের সুপার মো. আ’নোয়ার হোসেন জানান, ‘ফাঁ’সির আ’সা’মি হিসেবে তাকে (মিন্নি) ক’নডে’ম সে’লে রাখা হয়েছে। এই কা’রাগা’রের নারী ইউনিটে ১৯ জন ব’ন্দি ছিল। মিন্নিকে নিয়ে ২০ জন হলো।







এদিকে রায়ে’র পর মি’ন্নির পরি’বার ও তার আ’ইনজী’বীরা শত’ভাগ আশাবাদি যে- উচ্চ আ’দাল’তে মিন্নির সা’জা কমবে অথবা খা’লাস হয়ে বাড়ি ফির’বেন তিনি। তবে যে যাই বলুক সা’র্বিক পর্য’বে’ক্ষণে মি’ন্নির জন্য যে এক’টা সুখবর রয়েছে তা ব’লাই যায়!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *