অবশেষে হাসপাতাল থেকে যেভাবে বাড়ি যাচ্ছেন সেই ইউএনও ওয়াহিদা – OnlineCityNews

অবশেষে হাসপাতাল থেকে যেভাবে বাড়ি যাচ্ছেন সেই ইউএনও ওয়াহিদা

প্রায় ২৮ দিন চিকি’ৎসার পর সুস্থ হয়ে পায়ে হেঁ’টেই হাসপা’তাল ছাড়লেন দিনাজ’পুরের ঘোড়াঘাট উপ’জে’লার সাবেক নির্বাহী কর্মক’র্তা ও’য়াহিদা খানম।







বৃহস্প’তিবার দুপুর নাগাদ তাকে হাস’পাতাল থেকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে’ন তার চিকিৎসায় গঠিত মেডি’কেল বোর্ডের প্রধান এবং জাতীয় নি’উরোসা’য়েন্স ইন’স্টিটিউট ও হাসপা’তালের অ’ধ্যাপক ডা. জাহেদ হোসেন।







ডা. জাহেদ হোসেন জানান, ওয়া’হিদা খানম এখন সুস্থ। স্বাভাবিক চলাফে’রা করতে পারছেন। তিনি এখন হাঁটছেন, খাচ্ছেন, কথা বলছেন। সা’মান্য দু’র্বলতা আছে, একটু খোঁ’ড়াচ্ছেন। সপ্তাহখা’নেকের মধ্যে তাও ঠিক হয়ে যাবে।







ছাড়পত্র পাওয়ার পর পায়ে হেঁটে হাসপাতা’ল প্রাঙ্গণ ছেড়ে যান ওয়াহিদা খানম। এ সময় তাকে অ’নেকটা সু’স্থই দেখা গেছে।গত ২ সেপ্টেম্বর রাতে ঘোড়াঘাট উপজে’লা পরিষদ চত্বরের সরকারি বাসভবনে ঢুকে ইউ’এনও ওয়াহিদা খানম ও তার বাবা ও’মর আলীর ওপর হা’ম’লা চালায় দু’র্বৃ’ত্ত’রা।







হা’তু’ড়ির আ’ঘা’তে আ’হত বাবা-মেয়েকে প্রথমে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লে নেওয়া হয়। পরে ইউএনও ওয়াহিদাকে ঢাকা’য় ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউ’রোসা’য়েন্স ও হাসপা’তালে আনা হয়।







৩ সেপ্টেম্বর রাতে অ’স্ত্রোপ’চারে’র পর নি’বিড় পরি’চর্যাকেন্দ্রে রাখা হয় ওয়া’হিদা খা’নমকে। শা’রীরিক অ’বস্থার কি’ছুটা উন্নতি হলে ৭ সে’প্টেম্বর আই’সিইউ থেকে হাই ডিপেনডেন্সি ইউনিটে (এইচডিইউ) স্থা’নান্ত’র করা হয়।







এদিকে চিকিৎসার সু’বিধার জন্য গত ১৯ সেপ্টেম্বর ওয়াহিদা খানমকে ঘো’ড়াঘাটের উপজে’লা নির্বাহী ক’র্মকর্তার (ইউএনও) দা’য়িত্ব থেকে ব’দলি করে ঢা’কায় আনা হয়।







তবে হাস’পাতালে থাকায় তা’ৎক্ষণিকভাবে তাকে নতুন কোনো দা’য়িত্ব না দিয়ে জন’প্রশাসন মন্ত্রণালয়ে বি’শেষ ভা’রপ্রাপ্ত ক’র্মকর্তা হিসেবে রাখা হয়েছে।







ওয়া’হিদার স্বামী মো. মেজবাউল হোসেন রংপুরের পী’রগঞ্জের ইউ’এনও হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। স্ত্রীর চিকিৎসার বিষয়ে তিনি যেন সার্ব’ক্ষণিক খোঁ’জখবর রাখতে পারেন সেজন্য তাকেও বদলি করে ঢা’কায় স্বাস্থ্য ও পরি’বারক’ল্যাণ মন্ত্র’ণালয়ের স্বা’স্থ্যসেবা বিভা’গে আনা হয়েছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published.