ছেল হ’ত্যার উপযুক্ত রা’য় শুনে খুশিতে হাউ মাউ করে কেঁ’দে যা বললেন রিফাত শরীফের বাবা – OnlineCityNews

ছেল হ’ত্যার উপযুক্ত রা’য় শুনে খুশিতে হাউ মাউ করে কেঁ’দে যা বললেন রিফাত শরীফের বাবা

ছেলে রি’ফাত শরীফ হ’ত্যা মা’ম’লায় দা’য়ে পুত্রবধূ আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিসহ ছয় আ’সা’মিকে মৃ’ত্যু’দ’ণ্ড দেওয়ায় স’ন্তোষ প্রকাশ করে’ছেন আব্দুল হালিম দুলাল শরীফ।







বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে আ’লোচিত রিফাত শরীফ হ’ত্যা’ মা’ম’লায় তার স্ত্রী’ আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিসহ ছয় আ’সা’মি’কে মৃ’ত্যু’দ’ণ্ড দেন বর’গুনা জে’লা ও দায়’রা জ’জ আ’দা’ল’তের বি’চা’র’ক মো. আছাদুজ্জামান।







রা’য় ঘোষণার পর রিফাতের বাবা বলেন, আমি ও আমা’র পরি’বারের সবাই এ রা’য়ে অ’ত্যন্ত খু’শি হয়েছি। আমি আল্লা’হর কাছে শুক’রিয়া জা’নাই। সংশ্লি’ষ্ট সবাই এ মা’ম’লার বি’চা’র’কাজ আ’ন্তরিক’ভাবে করে’ছেন।







সেজন্য আমা’র ও আমা’র পরিবারের পক্ষ থেকে সবাইকে আ’ন্তরিক শুভেচ্ছ ও ধন্য’বাদ জানাচ্ছি। ২০০ পৃষ্ঠার এ রা’য়ে রা’ষ্ট্র’প’ক্ষের আইনজীবী মজিবুল হক কিসলু জানান, মৃ’ত্যু’দ’ণ্ডপ্রা’প্ত আ’সা’মিরা হলেন আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি, রাকিবুল হাসান রিফাত ওরফে রিফাত ফরাজী, ‘







আল কাইয়ুম ওরফে রাব্বী আকন, মো’হাইমিনুল ইস’লাম সিফাত, রেজওয়ান আলী খান হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয় ও মো. হাসান। খালাস পেয়েছেন মো. মুসা, রাফিউল ইস’লাম রাব্বী, মো. সাগর এবং কামরুল ইস’লাম সাইমুন।







গত ২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজ রোডের ক্যা’লিক্স একাডে’মির সামনে স্ত্রী মিন্নির সামনে ‘রিফাত শরীফকে কু’পি’য়ে জ’খ’ম করে ন’য়ন ব’ন্ড ও রিফা’ত ফরা’জীর সহ’যোগীরা। গুরু’তর অবস্থায় রিফাতকে বরগু’না জে’নারেল হাসপাতা’লে নেওয়া হয়। উন্নত’ চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতা’লে ভর্তি করা হয়।







সেখানে চি’কিৎসা’ধীন অ’বস্থায় রি’ফাত মা’রা যান। এ’রপর রিফা’তের বাবা দু’লাল শরীফ বাদী হয়ে সা’ব্বির আহম্মেদ ওরফে নয়ন ব’ন্ডকে প্র’ধান আ’সা’মি করে ১২ জনের নাম উ’ল্লেখ ও অজ্ঞাত আরও পাঁ’চ/ ছয়জনে’র বি’রুদ্ধে বর’গুনা থা’নায় হ’ত্যা মা’ম’লা করেন। এ মা’ম’লায় প্র’থমে মিন্নিকে প্র’ধান সাক্ষী করে’ছিলেন নি’হত রিফা’তের বাবা।







পরে ২ জু’লাই ভোরে জে’লা সদ’রের বুড়িরচর ইউনি’য়নের পুরাকা’টা ফেরি’ঘাট এলাকায় পুলি’শের সঙ্গে ‘ব’ন্দু’ক’যু’দ্ধে’ প্রধা’ন আ’সা’মি নয়ন ব’ন্ড (২৫) নি’হত হন। এ কারণে মা’ম’লা থেকে প’রে তার নাম বাদ দেওয়া হয়েছে।







প্রাথমিক অবস্থায় পু’লিশ বিষয়টি আমলে না নিলেও ফেসবুকে এ হ’ত্যাকাণ্ডের ভিডিও ভা’ই’রা’ল হওয়ার পর নড়েচড়ে বসে বরগু’নার পু’লিশ ‘প্রশাসন। দেশ’ব্যাপী ওঠে সমালো’চনা’র ঝড়। এরপ’র চেক’পোস্ট, ক’ড়া নি’রাপ’ত্তা ও ত’ল্লা’শি’তে একে একে ধ’রা পড়ে অ’ভি’যু’ক্তরা।







হ’ত্যা’কা’ণ্ডে’র ২০ দিন পর গত বছরের ১৬ জুলাই মিন্নিকে তার বা’বার বাসা থেকে বরগুনা পু’লিশ লা’ইনে নিয়ে জি’জ্ঞাসা’বাদ করা হয়। পরে জিজ্ঞা’সাবাদ শেষে এ হ’’ত্যা’য় তার সং’শ্লিষ্টতা রয়েছে বলে মনে হও’য়ায় ওইদি’ন রাতেই মি’ন্নিকে গ্রে’ফতার দে’খায় পু’লিশ।







পরে গত বছরের ১৭ জুলাই মি’ন্নিকে বরগুনার সি’নিয়র জু’ডিশিয়াল ম্যা’জিস্ট্রেট আ’দা’ল’তে হা’জির করে জি’জ্ঞাসাবাদের জন্য সাত’দিনের রি’মান্ড আবে’দন করে পু’লিশ। পরে শু’নানি শে’ষে আ’দা’ল’ত মি’ন্নির পাঁচ’দিনের রি’মান্ড ম’ঞ্জুর করেন।







পরে গত বছরের ২০ ‘জুলাই পাঁ’চদিনের রি’মান্ডের তৃ’তীয় দিন একই আ’দা’ল’তে রি’ফাত হ’ত্যা’কা”ণ্ডে জ’ড়িত থাকার ‘কথা স্বীকার করে ১৬৪ ধারা’য় স্বীকা’রো’ক্তিমূলক জ’বানবন্দি দেন মিন্নি। এরপর তাকে কা’রাগা’রে পাঠানোর নি’র্দেশ দেন বি’চা’র’ক মোহাম্মদ সিরা’জুল ইস’লাম গাজী।

এরপর ৪৯ দিন কারা’ভোগের পর গত বছরের ৩ সে’প্টেম্বর গণ’মাধ্যমের সঙ্গে ক’থা না বলার শ’র্তে উচ্চ আ’দা’’ল’তের নি’র্দেশে বরগুনার কা’রাগার থেকে জা’মি’নে মুক্ত’ হন মি’ন্নি। জা’মি’নের পর থেকে বাবা মো’জাম্মেল হোসেন কিশো’রের জিম্মায় বাড়িতে ছি’লেন তিনি।







মা’ম’লার ত’দন্তকারী সদর থা’নার কর্ম’কর্তা ভা’রপ্রাপ্ত ক’র্মকর্তা (ওসি, ত’দন্ত) হু’মা’উন কবির ১ সেপ্টেম্বর ২৪ জনকে অ’ভি’যু’ক্ত করে প্রাপ্ত ও অপ্রাপ্ত’বয়স্ক; দুইভাগে বিভক্ত করে আ’দা’’ল’তে অ’ভিযোগপত্র জমা দেন। এর মধ্যে প্রাপ্তবয়স্ক ১০ জন এবং অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ জন রয়েছে’ন। মা’ম’লার চা’র্জ’শি’টভুক্ত প্রাপ্তবয়স্ক আ’সা’মি মো. মুসা এখনও প’লা’ত’ক।







গত ১ জানু’য়ারি রিফাত হ’’ত্যা মা’’ম’লার প্রা’প্ত’ব’’য়’স্ক ১০ আ’’সা’মির বি’রুদ্ধে চার্জ গ’ঠন করেন বরগুনা জে’লা ও দায়রা জজ আ’দা’ল’ত।’ এরপর ৮ ‘জানুয়ারি থেকে প্রা’প্ত’ব’’য়’স্ক ১০ আ’সা’মির বিরু’দ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু করেন আ’দা’ল’ত। মোট ৭৬’ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়েছে এ মা’ম’লায়।

রিফা’ত হ’ত্যা মা’ম’লার প্রা’প্ত’ব’য়’স্ক আ’’সা’মিরা হলেন- রাকিবুল ‘হাসান রিফাত ফ’রাজি, আল ‘কাইউম ওরফে রাব্বী আকন, মোহা’ইমিনুল ই’সলাম সিফাত, রেজও’য়ান আলী খান হৃদয় ওরফে টি’কটক হৃদয়, মো. হাসান, মো. মুসা, আয়েশা সিদ্দিকা মি’ন্নি, রাফিউল ইস’লাম রাব্বী, মো. সাগর এবং কামরুল ইস’লাম সাইমুন।







এদিকে, অপ্রাপ্তবয়স্ক আ’সা’মিরা হ’লেন- হাজতে থাকা রিসান, রিফাত হাওলাদার, রা’’য়হান, অলি’উল্লাহ (অলি), ‘নাঈম, তানভীর এবং জা’মি’নে থাকা চন্দন, রাতুল, নাজমুল হাসান, নিয়া’মত, মারুফ বিল্লাহ, মারুফ মল্লিক, আরিয়ান শ্রাবণ এবং প্রিন্স মোল্লা।







মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় শিশু আ’দা’ল’তে রিফাত শরীফ হ’ত্যা মা’ম’লার অপ্রাপ্তবয়স্ক আ’সা’মিদের ফৌজদারি কার্যবিধির ৩৪২ ধারা’য় আ’সা’মি পরীক্ষা করা হয়।







এসম’য় আ’দা’ল’তে উপস্থিত সব আ’সা’’মি নিজেদের নির্দোষ দাবি করে বক্তব্য দেন। আগামী ৫ থেকে ৭ অক্টোবর পর্যন্ত আ’সা’মি ও রা’ষ্ট্র’প’ক্ষের আইনজীবীদের যুক্তিতর্ক উপ’স্থাপনের দিন ধা’র্য করেন আ’দা’’ল’ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *