একজন বলে ওঠে ‘দেখ মেয়েটি তো সুন্দর’, এমসি কলেজে ঘটে যাওয়া ঘটনার পূর্ন বর্ননা দিলো ধ’র্ষি’তা – OnlineCityNews
Breaking News
Home / সারা দেশ / একজন বলে ওঠে ‘দেখ মেয়েটি তো সুন্দর’, এমসি কলেজে ঘটে যাওয়া ঘটনার পূর্ন বর্ননা দিলো ধ’র্ষি’তা

একজন বলে ওঠে ‘দেখ মেয়েটি তো সুন্দর’, এমসি কলেজে ঘটে যাওয়া ঘটনার পূর্ন বর্ননা দিলো ধ’র্ষি’তা

Advertisement

সিলেটে এমসি ক’লেজে স্বা’মীর স’ঙ্গে ঘু’রতে যাও’য়া না’রীকে তু’লে নিয়ে গণ’ধ’র্ষ’ণের আগে অ’স্ত্রে’র মুখে স্ব’র্ণের চে’ইন, টাকা পয়সা’ ছি’নিয়ে নেয় ধ’র্ষ’করা। যাওয়ার সময় এক’জন বলে ওঠে ‘দেখ মে’য়েটি তো সু’ন্দর’। এ ‘কথা বলার পর অন্য’রাও তার দি’কে ফি’রে তাকায়। এর’পর তারা ঘু’রে এসে জা’পটে ধরে ওই নব’বধূ’কে।







এতে প্রতি’বা’দ করেন সঙ্গে’ থাকা স্বা’মী। ধ’র্ষ’করা এ সম’য় তার স্বা’মীকে মা’রধ’র করে তা’কে ছি’নিয়ে নিয়ে যা’য়। চিকি’ৎসা শেষে রোব’বার দুপু’র সাড়ে ১২টায় মা’মলার ত’দন্ত কর্ম’কর্তা শাহ’পরান থা’নার ওসি (ত’দন্ত) ইন্দ্র’নীল ভট্টা’চার্য গ’ণধ’র্ষ’ণের শি’কার গৃ’হবধূ’কে সি’লেটের বিচা’রিক হা’কিম আ’দালতে নিয়ে যান।







ম’হান’গর তৃ’তীয় হা’কিম আ’দালতের বিচা’রক শার’মিন খা’নম নীলা’র এজলা’সে নির্যা’তিত ও’ই নারী শি’শু নি’র্যাতন দ’মন আই’নের ২২ ধারা’য় দে’য়া জ’বানব’ন্দিতে এস’ব কথা বলে’ন। জবা’নব’ন্দি গ্র’হণ শেষে নি’র্যা’তিত ওই ন’বব’ধূকে প’রিবা’রের জি’ম্মায় দে’য়া হয়েছে।







ত’দন্ত সংশ্লি’ষ্টরা জা’নিয়েছেন, আ’দালতে নি’র্যাতি’তা না’রী প্রা’য় ২ ঘ’ণ্টা ২০ মি’নিট সম’য় ধ’রে তার ও’পর চলা নি’র্যাত’নের মর্মা’ন্তিক ঘ’টনা বর্ণনা দি’য়ে বিচা’রককে জা’নান ‘তা’দের বি’য়ে বে’শিদিন হ’য়নি। মা’ত্র কয়ে’ক মা’স হবে। এ’রই ম’ধ্যে স্বা’মীকে নি’য়ে তি’নি শু’ক্রবার বে’ড়াতে যা’ন এম’সি কলে’জে।







বি’কেলেই তা’রা কলে’জের ক্যা’ম্পাসে গি’য়ে ঢো’কেন। সে’খানে স্বা’মীর স’ঙ্গে ক্যা’ম্পাসের নানা জায়গায় ঘোরেন। তারা ক্যা’ম্পাস ঘু’রে স’ন্ধ্যার পর পে’ছন দিক দিয়ে এমসি ক’লেজ থেকে বের হন। এমন সময় ক্যাম্পা’সের পেছনের এলাকায় ধ’র্ষ’করা অব’স্থান কর’ছিল। তারা নব’দম্প’তিকে দে’খতে পে’য়ে ঘি’রে ধরে। এ’ক পর্যা’য়ে তা’রা অ’স্ত্রে’র মুখে স্ব’র্ণের চেই’ন, টাকা পয়’সা ছিনি’য়ে নেয়।







যাও’য়ার সময় এক’জন বলে ও’ঠে দেখ মেয়েটি তো সুন্দর। এ কথা বলার পর অন্যরাও তার দিকে ফিরে তাকায়। এরপর তারা ঘুরে এসে জাপটে ধরে তাকে। এতে প্রতি’বা’দ ক’রেন স’ঙ্গে থা’কা স্বা’মী। ধ’র্ষ’করা এ সময় তা’র স্বা’মীকে মা’রধর করে তা’কে ছি’নিয়ে নিয়ে যায়।







এ স’ময় তিনিও চিৎ’কার কর’ছিলেন। ধ’র্ষ’ক’রা তাকে যখন ধরে নিয়ে যা’চ্ছিল তখন পি’ছু পি’ছু যান স্বা’মী। তি’নি গিয়ে এম’সি কলেজের ছা’ত্রাবাসে ঢো’কেন। ধ’র্ষ’করা তা’কে ধরে নিয়ে যা’ওয়ার কিছু’ক্ষণের ম’ধ্যে স্বামী গি’য়ে তা’দের বা’ধা দেন। ছাত্রা’বা’সের ভে’তরেই তার স্বা’মীকে মা’রধর ক’রে ধ’র্ষ’করা। এক পর্যা’য়ে তাকে বেঁ’ধে ফে’লে।’







ওই না’রী জা’নান, ‘স্বা’মীকে বেঁ’ধে তা’রা তার ওপর নি’র্যা’তন শু’রু করে। এ স’ময় তিনি স’ম্ভ্রম র’ক্ষা’র্থে তা’দের হা’তে-পায়ে ধরেন। কি’ন্তু এতে ম’ন গ’লেনি ধ’র্ষ’কদের। এ স’ময় চিৎ’কার ক’রলেও কে’উ এ’গিয়ে আসে’নি। ছা’ত্রাবাসের দ্বিতী’য়তলা ‘থেকে ক’য়েকজন যুব’ক নিচে না’মতে চাইছিল। এ স’ময় তাদের ধ’মক দিয়ে আ’টকে দে’য়া হয়। প’রে পু’লিশ গেলে ধ’র্ষ’করা পা’লিয়ে যায়।’







এ ঘ’টনার পর শুক্র’বার রা’ত ৯টার দি’কে ছা’ত্রলী’গের সা’বেক নে’তা বাব’লা’কে নি’য়ে শাহ’পরান থা’নার ওসি ধ’র্ষি’তা না’রী ও তার স্বা’মীকে এম’সি কলে’জের ছাত্রা’বাস থেকে উ’দ্ধার ক’রেন। খ’বর পে’য়ে সেখা’নে আ’রও কয়ে’কজন ছা’ত্রনেতা যা’ন। উ’দ্ধারের প’র ওই না’রীকে সি’লেটের ওস’মানী মে’ডিকেল ক’লেজ হাসপাতা’লের ওসিসিতে ভর্তি করা হয়।







হাসপাতা’লে বিশে’ষজ্ঞ চিকিৎসকদের ত’ত্ত্বাবধানে তার চিকিৎসা ক’রা হয়। এদিকে রোব’বার রাতে গ’ণধ’র্ষ’ণের শি’কার গৃহ’বধূর স্বামী গণ’মাধ্যম ক’র্মীদের কাছে বলেন, ছা’ত্রাবাসে গৃহব’ধূকে ধ’র্ষ’ণের আগে’ তার স্বা’মীর কাছে ৫০ হা’জার টাকা দা’বি করে’ছিল ধ’র্ষ’করা। ৫০ হা’জার টা’কা না পেয়ে ধ’র্ষি’তার কানের স্ব’র্ণের দুল ও গ’লার চেইন এবং স্বা’মীর মানি’ব্যাগ থেকে দুই হাজার টাকা ছি’নিয়ে নেয় তারা।







তিনি আরও জা’নান, শু’ক্রবার বিকেলে স্ত্রী’কে নি’য়ে ঘু’রতে বের হন। ই’চ্ছা ছিল স’ন্ধ্যার মধ্যেই বা’সায় ফে’রার। শা’হপ’রান থেকে ফে’রার প’থে এমসি কলে’জের গেটের সা’মনে গাড়ি থা’মিয়ে সিগা’রেট নিয়ে আ’সেন তিনি।







সি’লেটের দ’ক্ষিণ সুর’মা’র শিব’বাড়ি এলা”কার ওই বা’সিন্দা বলেন, গা’ড়িতে ওঠার পর পেছন থেকে এক’জন বলেন এই দাঁড়াও। তখন স্ত্রীকে বললাম, গা’ড়ির গ্লাস’টা একটু না’মাও ক’থা বলব। তা’রা বলেন না নেমে আস। গা’ড়ি থেকে নামা’র পর তা’রা দু’জন (সা’ইফুর ও অ’র্জুন) জি’জ্ঞেস করে গা’ড়িতে কে? বল’লাম আমা’র স্ত্রী।







তখন তারা গা’লি দিয়ে বলেন, ‘তুই দা’লালির ব্যবসা করছ’। এই ব’লেই থা’প্প’ড় মা’রে আ’মাকে। তখন আমা’র স্ত্রী গাড়ি থে’কে নে’মে আ’মার পে’ছনে দাঁ’ড়িয়ে জি’জ্ঞেস করে আমা’র স্বা’মীকে মা’রছ কেন? চি’ল্লা’চি’ল্লি শুরু ক’রলে তা’রা বলে গা’ড়িতে ওঠ তো’দের থা’নায় নিয়ে যাব। ভ’য় দে’খিয়ে তারা তিন-চার’জন আমা’র গা’ড়িতে ওঠে। আ’মাকে নিয়ে তা’রা পে’ছনে বসে আ’র স্ত্রীকে সাম’নে বসি’য়ে তা’দের এক’জ’ন গা’ড়ি চা’লায়।







বল’লাম ঠি’ক আছে আমা’কে আই’নের আও’তায় নিয়ে যাও, কো’নো সমস্যা নেই। তারা ছা’ত্রাবা’সে প্রবে’শের রা’স্তার কা’লভা’র্টে গিয়ে বলে তুই মা’নিব্যা’গ বের কর। টা’কা দে ৫০ হা’জার। বললাম আমা’র কা’ছেতো এত টা’কা নেই। দুই হা’জার টাকা আছে নিয়ে নাও। এর’পর আমাকে মা’রধর করে। স্ত্রীর স্ব’র্ণের কা’নের দুল ও গ’লার চেইন ছি’নিয়ে নেয়। এর’পর তাদের একজন আ’মার স্ত্রী’কে তু’লে নি’য়ে যায়। এ কথা’ বলেই কেঁ’দে ফে’লেন ধ’র্ষিতা’র স্বা’মী।







তি’নি আর’ও বলেন, স্ত্রী’র চি’ৎকার শু’নে বলি এর’কম তো ঠিক’ না ভাই। এরপ’রই আমি আর নি’জেকে সাম’লাতে পারিনি। মা’নসি’ক ভা’রসা’ম্য হারিয়ে ফে’লি। কি করব ভে’বে পা’চ্ছি’লাম না। মা’থায় কা’জ ক’রছিল না।

Advertisement
Advertisement

Check Also

পদ্মার জলে জাল ফেলতেই ঝাকে ঝাকে উঠলো বড় তাজা ইলিশ, ভাইরাল ভিডিও!

Advertisement ইন্টারনেট দুনিয়ার সাহায্যে আম'রা খুব সহজেই কম সময়ের মধ্যে বহির্বিশ্বের সাথে সংযোগ স্থাপন করতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!