ছেলের জন্মদিনে শাকিব-অপুর আবেগঘন স্ট্যাটাসে সবাই অবাক – OnlineCityNews

ছেলের জন্মদিনে শাকিব-অপুর আবেগঘন স্ট্যাটাসে সবাই অবাক

বাংলাদেশের হিট জুটি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। ভালোবেসে তারা বিয়ে করেছিলেন। সেই সংসার টেকেনি। তবে দুজনের প্রেম-ভালোবাসার স্মৃ'তি হয়ে আছে একমাত্র পুত্র আব্রাম খান জয়। আজ তার জন্মদিন। ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর কলকাতার একটি হাসপাতা’লে জয়কে জন্ম দেন অপু বিশ্বাস।







বাবা-মা একসঙ্গে থাকেন না। তাই নিজের জন্মদিনে তাদের নিয়ে একসঙ্গে কেক কা’টার সুযোগ জয় পায়নি। তবে দুজনের কাছ থেকেই মিললো স্নেহ-মমতামাখা ভালোবাসা, শুভেচ্ছা ও দোয়া।







জয় থাকে মায়ের সঙ্গে। মাঝে মাঝে বাবার দেখা পায় সে। মায়ের সংসারে তার খেলার সঙ্গী হয়ে ছিল নানি জোৎস্না বিশ্বাস। গত সপ্তাহেই তিনি মৃ’ত্যুবরণ করেছেন। তাই প্রতিবারের মতো এবার মায়ের কাছ থেকে জমকালো আয়োজনের জন্মদিন পায়নি জয়।







সেই আক্ষেপ জানিয়ে তার মা অপু ফেসবুকে লিখেছেন, ‘বাবা এবার তোমার জন্মদিনের কোন আয়োজনই আমি করতে পারলাম না। তোমার দিদা তোমার পাশে নেই। আম'রা আর কখনো তোমার দিদার দেখা পাবো না। আমি তোমার মা হিসেবে তোমাকে অনেক অনেক আশীর্বাদ করি। তোমার দিদার আশা পূরণ করে যেন আমি তোমাকে মানুষের মতো মানুষ করতে পারি।’







সবার কাছে জয়ের জন্য দোয়া চেয়ে অপু বলেন, ‘আপনারা যারা আমা’র জয়কে ভালোবাসেন তারা সবাই জয়ের জন্য অনেক অনেক আশীর্বাদ করবেন। জয় যেন মানুষের মতো মানুষ হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে পারে। এটাই হবে জয়ের জন্য এবারের জন্মদিনের অমূল্য উপহার।’







এদিকে বাবা শাকিব তার ফেসবুক পেজে জয়কে শুভেচ্ছা দিয়ে লিখেছেন, “আমা’র এই ছোট্ট জীবনে ভালোবাসা, সম্মান, সম্মাননা সবকিছু পেয়েছি। আলহামদুলিল্লাহ এখন পর্যন্ত আমা’র জীবনের সবচেয়ে বড় অর্জন তুমি। আমা’র ‘জয়’ বাবা।







ইনশাআল্লাহ একদিন তুমি আমা’র চেয়েও সফল এবং অনেক ভালো একজন মানুষ হবে। ছাড়িয়ে যাবে বাবার স্বপ্নের সকল সীমানাকেও। তোমার চলার পথে বাবা আমৃ’ত্যু ছায়া হয়ে পাশে থাকবে, যেমনটা এখনও আছে।







এক চরম বাস্তবতার কারণে হয়তো তুমি আমি সবসময় এক ছাদের নিচে থাকতে পারছি না। কিন্তু আম'রা ঠিকই আছি ভালোবাসা আর সুরক্ষার ছায়ায় ও মায়ায়। তোমাকে আমি সবসময় এবং আজীবন ভালোবাসি বাবা।”







ছেলের উদ্দেশ্যে তিনি আরও লেখেন, ‘সবসময় মনে রাখবে, তোমার বাবাই তোমার জীবনের সুপারহিরো।’






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *