সুশান্ত সিং রাজপুত ড্রা’গ নিতেন কি না অবশেষে জানালেন রিয়া

রবিবার টানা ৬ ঘণ্টা রিয়াকে জে’রা করে এনসিবি। জেরায় রিয়ার দাবি, সুশান্ত মা’দকের নেশা করতেন। তিনিই রিয়াকে বলেছিলেন, শৌভিক ও স্যামুয়েলের থেকে মা’দক জো’গাড় করার ব্যবস্থা করতে। সুশান্ত মৃ’ত্যু ত’দন্ত চলাকালীন মা’দকের গ’ন্ধ পান সিবি’আই আধিকারিকরা!

তারপরই ত’দন্ত শুরু করে নারকোটিক্স কনট্রোল ব্যুরো বা এনসিবি! ইতিমধ্যেই মা’দক চক্রে জড়িত থাকার অ’ভিযোগে গ্রে’ফতার রিয়া চক্রবর্তীর ভাই শৌভিক চক্রবর্তী, সুশান্তের প্রাক্তন হাউজ ম্যানেজার স্যামুয়েল মি’রান্ডা ও সুশান্তের সহকারী দীপেশ! এবার এনসিবি-র জেরায় সুশান্ত মৃ’ত্যু মা’মলার অন্যতম মূল স’ন্দেহ’ভাজন’ রিয়া চক্র’বর্তী!

সূত্রের খবর, জেরায় এনসিবি আধিকারিকদের কাছে রিয়ার দাবি, সুশান্ত সিং রাজপুত মা’দকের নে’শা করতেন!রবিবার টানা ৬ ঘণ্টা রিয়াকে জে’রা করে এনসিবি। জে’রায় রিয়ার দাবি, সুশান্ত চড়’শের নে’শা করতেন। তিনিই রিয়াকে বলেছিলেন, শৌভিক ও স্যামুয়েলের থেকে চ’ড়শ জো’গাড় করার ব্যবস্থা করতে।

রিয়ার বক্তব্য, সুশান্ত জানতেন, শৌভিক এবং স্যামুয়েলের পরিচিত কিছু লোকজন রয়েছেন, যাঁরা তাঁর জন্য মা’দক সরবারহ করতে পারবেন। জেরায় রিয়া এও স্বী’কার করেন, তিনিও সুশান্তের জন্য দু-একবার মা’দকের ব্যবস্থা করেছেন। রিয়া’র দাবি, স্যামুয়েলের থেকে’ সরাসরিও মা’দক নিতেন সু’শান্ত।

তবে, শৌভিক মা’দক সেব’ন করেন কিনা, সে বিষয়ে তাঁর কিছু জানা নেই! রিয়া এও জানান, চড়’শ ছাড়া অন্য কোনও মা’দকের নে’শা ছিল না সুশা’ন্তের রবিবারের পর আজ, সোমবারও রি’য়াকে জেরা করছে সিবি’আই। সোমবার সকালে নি’র্দিষ্ট সময়ের আগেই এ’নসিবির অ’ফিসে পৌঁছে যান অ’ভিনেত্রী।

সূত্রের খবর, সোমবার শৌভিক চক্রবর্তী, স্যামুয়েল মিরান্ডা ও দীপেশের সঙ্গে বসিয়ে রিয়া চক্রবর্তীকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারেন এনসিবি সধিকারিকরা। এদিন সকালেই শৌভিক চক্রবর্তী এবং স্যামুয়েল মিরান্ডাকে মেডিকেল টেস্টের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়।

অন্যদিকে এনসিবি-র জেরায় রিয়া ১৮-১৯ জন হে’ভিহোয়েট বলিউড সেলেবদের নাম উল্লেখ করেন, যাঁরা নিয়’মিত ড্রা’গ নিয়ে থাকেন। রিয়ার স্বী’কারো’ক্তি, ১৫ মার্চের যে হো’য়াটসঅ্যাপ চ্যাট প্রকাশ্যে এসেছে, তা একেবারে সত্যি। সেখানে তিনি এবং শৌভিক ড্রা’গ নিয়েই আ’লোচনা করেছিলেন।

সুশান্ত মৃ’ত্যুর ত’দন্তে মা’দক যোগ পাওয়ার পরই ত’দন্তে যু’ক্ত হয় এনসিবি৷ রিয়া চক্রবর্তীর বিরু’দ্ধে মা’ম’লাও করেছে তারা ৷ শৌভিকের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট থেকে উঠে আসে, একাধিক মা’দক ব্য’বসায়ীর সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে তাঁর। সেই সূত্র ধরে ইতিম’ধ্যেই বসিত, ভিলা’ত্রা, ফৈয়াজ ও কাইজান নামে ৪ মা’দক ব্যবসায়ীকে গ্রেফ’তার করেছে NCB। জে’রায় ৪ জনই স্বী’কার করেছেন শৌভি’কের সঙ্গে তাঁদের যোগা’যোগের কথা! খোঁ’জ চলছে মা’দক ব্যবসা’য়ী ফারুক বা’টাটার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!