প্রতারিত ও প্রত্যাখ্যাত হয়ে আমার ছেলে আ’ত্মহ’ত্যা করতেও পারে! সুশান্তের বাবার বয়ানে আরো যে রহ’স্য বেড়িয়ে এলো – OnlineCityNews

প্রতারিত ও প্রত্যাখ্যাত হয়ে আমার ছেলে আ’ত্মহ’ত্যা করতেও পারে! সুশান্তের বাবার বয়ানে আরো যে রহ’স্য বেড়িয়ে এলো

হয়তো বার বার প্র’ত্যাখ্যা’ত হওয়ার পর আ’ত্মহ’ত্যার মতো সি’দ্ধান্ত নিয়েছে আমা’র ছেলে সুশান্ত সিং রাজপুতের বাবা কে কে সিং রাজপুত মুম্বই পু’লিশকে বলেছিলেন পারিপার্শ্বিক চাপ এবং বার বার প্র’ত্যাখ্যা’ত হওয়ার পর আমা’র ছেলে আ’ত্মহ’ত্যা করতেই পারে। মুম্বই পু’লিশকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমনই বলে’ছিলেন অভিনেতার বাবা।

এমনকী একটি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারেও ওই কথা বলেছিলেন কেকে সিং। তাঁর কথা অনুযায়ী ‘আমা’র ছেলে কেন আ’ত্মহ’ত্যা করল তা আমি সত্যিই জানি না। কোনওদিন মা’নসি’ক চা’প বা হ’তাশা’র কথা বলেনি’। ‘ওর মৃ’ত্যু নিয়ে আমা’র কোনও অ’ভিযোগ নেই। হয়তো ওর মনেও কোনও চা’পা হ’তা’শা ছিল, যেখান থেকে এরকম একটা সি’দ্ধা’ন্ত নিতে ও বা’ধ্য হল।

তবে ছেলের মৃ’ত্যুর একমাস পরে তিনি পটনা থা’নায় অভি’যোগ দা’য়ের করেন রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর পরিবারের বি’রুদ্ধে। চক্রবর্তী পরিবারের বি’রুদ্ধে ওই এফ’আই’আরে লেখা ছিল, অভিনেতার থেকে প্র’চুর টাকা হাতিয়ে নেন রিয়া। তাঁকে নিয়মিত জো’র করে ক”ড়া ডো’জের ড্রা’গ খাওয়া’নো হত। তাঁর ছেলেকে এভাবেই আ’ত্মহ’ত্যায় প্ররো’চনা দেয় রিয়া ও তাঁর পরিবার।

আর এই সু’যোগে অভি’নেতার বাড়ি থেকে বেশ কিছু দা’মি সামগ্রীও হা’তিয়ে নেয় রিয়া। তবে কে কে সিং আরও দাবি করেছেন, ছেলের মৃ’ত্যুর পর তিনি মুম্বই পু’লিশকে যা যা বলেছিলেন সেগুলো সবই ম’রা’ঠিতে লেখা হয়। বার বার অনুরোধ করার পরও অন্য ভা’ষায় লেখা হয়নি।

তবে মুম্বই পু’লিশের তরফ থেকে জা’নানো হয়েছিল, তিনি যা যা বলছেন সেসব কিছুই লেখা হয়েছে ওই বয়ানে। এরপর কে কে সিংকে দিয়ে তা সইও করিয়ে নেওয়া হয়’। সেদিন কে কে সিং বলেছিলেন, আমা’র ছেলে সুশান্ত ১৩ মে ২০১৯ মু’ম্বি থেকে পটনা এসেছিল মু’ন্ডন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে। আবার ১৬ তারিখ ফিরে যায় মু’ম্বইতে।

এরপর আমা’র ওর সঙ্গে ফোনে কথা হত কম। হোয়্যাটসঅ্যাপেই কথা হয় বেশি। তবে রিয়া চক্রবর্তী প্রথম থেকেই তাঁর ছেলের মান’সিক সম’স্যাকে গো’পন করে গিয়েছে। রিয়া যে তাঁর চিকিৎসা করা’চ্ছেন তা যেমন জানায়নি তে’মনই ও যে ওষুধ খাওয়াত সে কথাও কো’নও দিন বলেনি। তবে যে সময় তাঁর এই বয়ান রেকর্ড করা হয় তখন সে’খানে উপস্থিত ছিল জা’মাই ওপি সিং,

যিনি হরি’য়ানা পু’লিশের সি’নিয়র পু’লিশ অ’ফিসার এং তাঁর স্ত্রী নিতু সিং। এমনকী তাঁ’দেরও ব’য়ান রেকর্ড করা হয়েছিল। তবে কে কে সিং’য়ের আগে সু’শান্তের দিদি প্রিয়াঙ্কা ও মিতুও নিজেদের বক্তব্য পু’লিশকে জানিয়েছেন। তাঁরা দু’জনেই স্বী’কার করেছেন যে, সুশান্ত জানিয়েছিলেন যে তিনি হ’তা’শায় ভুগ’ছেন এবং ২০১৩ সালে তিনি একজন ম’নো’রোগ বিশে’ষজ্ঞের পরা’মর্শ নেন।

তবে এরপর ত’দন্ত’ভার যায় সি’বিআই এর হাতে। সিবিআই নিজের ম’তো করে তদ’ন্ত করতে শুরু করে। এমনকী এই মা’মলায় পা’ওয়া গিয়েছে ড্রা’গের যোগ। ফ’লে এন’সিবিও আলাদা করে একটি মা’মলা রু’জু করে ত’দন্ত শুরু করেছে। ইতোম’ধ্যে দুজনকে গ্রে’ফতারও করা হয়েছে। সি’বিআই জেরা করেছে রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর পরি’বারকে। একা’ধিকবার সি’দ্ধার্থ ও সুশান্তের বাড়ির দুই ক’র্মীকেও বার’বার জে’রা করা হ’য়েছে। উঠে এসেছে একা’ধিক গুরুত্বপূর্ণ ত’থ্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *