Breaking News
Home / ভারত / সুশান্তের বাবার সাথে সুশান্তর সম্পর্ক নিয়ে বো’মা ফা’টালেন রিয়া চক্রবর্তী

সুশান্তের বাবার সাথে সুশান্তর সম্পর্ক নিয়ে বো’মা ফা’টালেন রিয়া চক্রবর্তী

Advertisement

রিয়া বলেন, সম্ভবত সুশান্ত ওর দিদিদের ঠিক পছন্দ করত না । তাই চ’ণ্ডী’গড় থেকে দু’দিনের মধ্যেই ফিরে এসেছিল সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃ’ত্যুর পর প্রথমবার মিডিয়ার মুখোমুখি রিয়া চক্রবর্তী । বৃহস্পতিবার, সর্বভারতীয় একটি সংবাদ মাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন তিনি ।

আর সেই সাক্ষাৎকারেই একের পর এক বি’স্ফো’রক অ’ভিযোগ করেছেন রিয়া। একাধিক চা’ঞ্চ’ল্যকর দাবির মধ্যে, গতকালের ওই সাক্ষাৎকারে রিয়া এও বলেন, বাবার সঙ্গে নাকি সম্পর্ক একেবারেই ভাল ছিল না সুশান্তের । এমনকি বাবা কেকে সিংয়ের সঙ্গে গত ৫ বছরে কখনও সুশান্ত দেখে করেনি বলেও দাবি করেন ‘জলেবি’ নায়িকা।

রিয়া এও বলেন, ৮-১৩ জুন পর্যন্ত সুশান্তের দিদি মিতু সুশান্তের সঙ্গে ছিলেন । সুশান্তের মা’নসিক অবস্থা ভাল ছিল না । তাই তিনি চাইছিলেন, ওঁর পরিবার ওঁর সঙ্গে থাকুক। ফেব্রুয়ারিতে সুশান্তের সঙ্গে দেখা করতে এসেছিলেন ওর আর এক দিদি ও জামাইবাবু ওপি সিং ।

ওঁরা রেস্তোরাঁয় একসঙ্গে খেতেও গিয়েছিলেন। জানুয়ারিতে সুশান্ত পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে চ’ণ্ডী’গড় যায় । কিন্তু দু’দিনের মধ্যেই ফিরে আসে । রিয়া বলেন, ‘‘সম্ভবত সুশান্ত ওঁদের ঠিক পছন্দ করতেন না । আমি ওকে ফিরতে বলিনি । এমনকী আমি তো জানতামই না সুশান্ত ফিরে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।’’

রিয়া আরও বলেন, সুশান্তের দিদিরা যখনই এক জায়গায় হতেন, ওরা ঝগ’ড়া করতেন । সুশান্তের মানসিক অবস্থা ভাল ছিল না বলে তিনি পরিবারকে বারবার সুশান্তের পাশে থাকার জন্য বলেছিলেন । সুশান্ত কাঁদতে কাঁদতে ফোন করত । বলত, সকলে যেন তাঁর সঙ্গে দেখা করতে আসে।

‘‘সুশান্তের সঙ্গে ওর বাবার সম্পর্কও ভাল ছিল না । আমি আসার আগে সুশান্ত ৫ বছর বাবার সঙ্গে দেখা করেনি । ওর মা মা’রা যাওযার পর বাবা সন্তানদের থেকে দূরে সরে গিয়েছিলেন । সুশান্ত ওঁর মায়ের খুব কাছের ছিল । মায়ের জন্য ‘দুঃ’খ পেত । ওরা মা-ও অবসাদের স্বীকার ছিলেন’’, সাক্ষাৎকারে বলেন রিয়া চ’ক্র’বর্তী।

Advertisement
Advertisement

Check Also

এবার পুরুষের জন্য জন্মনিয়ন্ত্রক টিকা আনছে ভারত

Advertisement দেশের জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে আনতে নারীদের পাশাপাশি এবার পুরুষের জন্যও জন্মনিয়ন্ত্রক টিকা আনছে ভারত। দেশটির …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!