Breaking News
Home / আন্তর্জাতিক / গ্রামে নেই পাকা রাস্তা, নেই বিদ্যুৎ পরিষেবা, প্রতিকূল পরিবেশ কে হার মানিয়ে যেভাবে করলেন UPSC পাশ করলেন কন্যা

গ্রামে নেই পাকা রাস্তা, নেই বিদ্যুৎ পরিষেবা, প্রতিকূল পরিবেশ কে হার মানিয়ে যেভাবে করলেন UPSC পাশ করলেন কন্যা

Advertisement
Advertisement

নানান রকম বা’ধাবি’ঘ্ন কাটিয়ে ইউপিএসসি পরীক্ষায় পাশ করলেন এক গন্ডগ্রামের কন্যা কুমারী প্রিয়াঙ্কা। তার বাড়ি রামপুরের এক অজ পাড়াগাঁয়ে। পড়াশোনা করার পাশাপাশি টিউশন পড়াতেন তিনি। তার ৪০ জন পড়ুয়া ছিল। স্কুল থেকে ফেরার পথে বাবাকে ফার্মে সাহায্য করতেন কুমারী প্রিয়াঙ্কা।

বর্তমানে তার ২৮ বছর বয়স। ২০১৯ এই প্রথমবারের মতো ইউ পি এস সি পরীক্ষা দিয়েছিলেন তিনি। আর প্রথমবারই সাফল্য অর্জন করলেন প্রিয়াঙ্কা। রামপুর থেকে দেরাদুন এর দূরত্ব ১৪৫ কিলোমিটার। তাই পরীক্ষার ফলাফল বেরোনোর দুদিন পরে বাড়িতে কথা জানাতে পেরেছিলেন প্রিয়াঙ্কা। তিনি দেরাদুনে থাকেন এবং তার পরিবার থাকেন রাখতে।

প্রিয়াঙ্কার বাবা দিওয়ান রাম গ্রামের উঁচু জায়গায় গিয়ে কোন সিগন্যাল পাওয়ার পরই মেয়ের সুখবরের কথা জানতে পারেন। তিনি জানতে পারেন তার মেয়ে ইউ পি এস সি পরীক্ষায় ২৫৭ র‍্যাংক করেছে। প্রবল প্রতি’কূ’লতার মধ্যেও পড়াশোনা চালিয়ে গিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা। অতীতে করা ক’ষ্টের কথা মনে করে আর মেয়ের সাফল্যের কথা শুনে চোখে জল এসেছিল তার বাবার।

রামপুরে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করত কুমারী প্রিয়াঙ্কা। রামপুর থেকে ১-২ কিলোমিটার দূরে টপরটিতে একটি বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছেন তিনি। স্কুলে ছুটি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বাবার কাছে এসে ফার্মিংয়ের কাজে সাহায্য করতেন তিনি। এই ফার্ম থেকেই তাদের যেটুকু রুজি-রোজগার হত তারা দিয়ে চলতো সংসার।

দশম শ্রেণীর বোর্ডের পরীক্ষায় ভালো রেজাল্ট করে পাশ করার পর প্রিয়াঙ্কার স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকারা তার পরিবারকে জানিয়েছিলেন, এবার আরো ভালো পড়াশোনার জন্য তাকে আরো ভালো ইন্সটিটিউশনে ভর্তি হতে হবে। একথা শোনা মাত্রই প্রিয়াঙ্কার মা-বাবা বাবা-মা তাকে গোপেশ্বর এ নিয়ে যান। গোপেশ্বর এর একটি সরকারি কলেজে প্রিয়াঙ্কাকে ভর্তি করে দেন তারা। সেই কলেজ থেকে বিএসসি পাশ করে প্রিয়াঙ্কা।

এরপর প্রিয়াঙ্কা দেরাদুনে এসে ল কলেজে ভর্তি হওয়ার পর সেখান থেকেই ল পাস করেন। ঠিক তার পরেই এই সাফল্য অর্জন করলেন তিনি। পড়াশোনা করার জন্য অনেক পরিশ্রম করেছেন প্রিয়াঙ্কা। এতোটুকু জীবনের মধ্যে সব রকম দুঃখ-ক’ষ্ট প্র’তি’কূল পরিবেশের অসুবিধা থেকে শুরু করে সব দেখেছেন তিনি। তবুও নিজের পড়াশোনাকে হা’তি’য়ার করে সাফল্যের চূড়ায় পৌঁছে গেছেন প্রিয়াঙ্কা। আজ এই প্রিয়াঙ্কা সকল ছাত্রছাত্রীদের কাছে এক জ্ব’লন্ত দৃষ্টান্ত।

Advertisement
Advertisement

Check Also

চাকরি ছেড়ে মাত্র ১২ হাজার টাকায় ব্যবসা শুরু, ৩ বছরে কোটিপতি এই তরুণী!

Advertisement Advertisement চাকরি ছেড়ে মাত্র ১২ হাজার টাকায় ব্যবসা শুরু, ৩ বছরে কোটিপতি এই তরুণী! …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!