টানা ১৮ ঘন্টা জেরার পর পুলিশের চাপে অবশেষে যে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলেন রিয়ার ভাই – OnlineCityNews

টানা ১৮ ঘন্টা জেরার পর পুলিশের চাপে অবশেষে যে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিলেন রিয়ার ভাই

প্রায়ত বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃ’ত্যুর ত’দন্ত কেন্দ্রীয় ইডি-র অফিসাররা শুরু করে দিয়েছেন। প্রথমে সুশান্তের প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তী তারপর রিয়ার ভাই সৌভিক চক্রবর্তীকে জেরা করে তারা। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়েছিল শনিবার বেলায় এবং শেষ হলো রবিবার সকালে।

জিজ্ঞাসাবাদের পর আইডির দপ্তর থেকে তাকে বের হতে দেখা যায়। এছাড়া সৌভিকের নামে আগেও কিছু তথ্য সামনে এসেছে। সুশান্ত একটি সংস্থার সাথে তিনি যুক্ত ছিলেন।ইডির জিজ্ঞাসাবাদের পর সূত্রে জানা গেছে, ইডির অফিসাররা তাকে মোট ১৮ ঘণ্টা দফায় জেরা করে।

সুশান্ত সেই সংস্থার ডিরেক্টর সৌভিক তার কাছ থেকে বিভিন্ন তথ্য জানতে চাওয়া হয়েছে সংস্থার ব্যাপারে। এছাড়া সুশান্ত এর একাউন্ট থেকে এত টাকা কোথায় যেতো সে ব্যাপারেও তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। ইডি জানিয়েছেন সৌভিকের এই তথ্য অনুসারে ফের জেরা করা হতে পারে রিয়া চক্রবর্তীকে।

এর আগের ইডি অফিসাররা জানিয়েছেন রিয়া চক্রবর্তী কেতরানো ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদের পর তার দেওয়া তথ্য এম গোয়েন্দাসংস্থা খুশি নন। তিনি তাদেরকে পুরোপুরি ভাবে সহযোগিতা করেননি।সুশান্তের বাবাকে কে কে সিং রিয়া এবং তার পরিবারের বি’রুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন।

তার বাবা অ’ভিযোগ জানিয়েছেন টাকা আত্মসাতের। এছাড়াও তাদের বি’রুদ্ধে বিভিন্ন তথ্য পেয়েছেন বিহার পু’লিশ। অন্যদিকে রিয়া চক্রবর্তী আদালতের জানান এই মৃ’ত্যু ত’দন্ত বিহার পু’লিশের হাত থেকে সরিয়ে মুম্বাই পু’লিশের হাতে দেওয়া হোক। তিনি দাবি জানিয়েছেন বিহার পু’লিশ এই মৃ’ত্যুর ত’দন্ত করতে পারবে না।

প্রসঙ্গত শনিবার একটি হলফনামা দায়ের করে সুশান্তের বাবা কে কে সিংহ দাবি করেছেন, রিয়া চক্রবর্তী তার প্রভাব খাটানোর চেষ্টা করছে মুম্বাই পু’লিশের ওপর তাই এই মৃ’ত্যুর ত’দন্ত পু’লিশের হাতে দেওয়া হয়। কিন্তু এই মৃ’ত্যু ত’দন্তে এবার নেমেছে সিবিআই। অন্যদিকে সিবিআই এবং আইডির ত’দন্তের মাঝেই সুপ্রিম কোর্টে সুশান্তের মৃ’ত্যুর ত’দন্তের রিপোর্ট জমা দিয়েছেন মহারাষ্ট্র সরকার। এই ব্যাপারে মহারাষ্ট্র স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী তাঁরা পরবর্তী পদক্ষেপ নেবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *