গু’লিবিদ্ধ সিনহা লিয়াকতের কাছে মৃ’ত্যুর আগে যা চেয়েছিল

গু’লিবি’দ্ধ অবস্থায় পিক’আপ ভ্যা’নে করে হাস’পাতা’লে নেয়া হচ্ছিল বাংলাদেশ সে’নাবাহিনীর সাবেক মেজর সিনহা মোহাম্ম’দ রাশেদকে। এ সময় মৃ’ত্যুমুখে থাকা সিনহা বাঁ’চার জন্য পু’লিশ কর্ম’ক’র্তা লি’য়াকতে”র কাছে অক্সি’জেন চেয়েছিলেন। কিন্তু অক্সি’জেনের বদলে লিয়াকত’ তাকে পিকআপে বসেই আরো দুটি গু’লি’ করে। বন্ধু’দের কাছে এমন বর্ণ’না দিয়েছেন ওই পিক’অ্যা’পের চালক আবুইয়া।

আবুইয়ার বন্ধু সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালক সময় নিউজকে এ বিষয়টি জানিয়েছেন। এর আগে চেকপোস্টে ত’ল্লা’শির সময় হাত উচু করা অবস্থাতেই সিনহাকে গু’লি করে পু’লিশ কর্মক’র্তা লিয়াকত। চেকপোস্টে গু’লি করার এই বর্ণনা সময় নিউজের কাছে দিয়েছেন স্থা’নীয় ম’সজি’দের মোয়া’জ্জিন।

জানা গেছে, কক্স”বাজারের টেক’নাফ মেরিনড্রাইভে সে’না, পু’লিশ ও বিজিবি’র তল্লা’শি চৌকি রয়েছে। অন্যান্য চেক’পোস্টে’র থেকে শামলাপুর পু’লি’শ চেক’পো’স্টটি একটু আলা’দা। অন্য চেক’পোস্টগু’লো নির্জন জা’য়গায় হলেও এই চেক’পোস্ট’টির পাশে বাজা’র, ম’সজিদ, লো’কালয় র’য়েছে।

অ’টোরি’কশা চালক বলেন, ঘট’নার পর সেই মিনি পিক’আপ চালক বেলাল ‘আ’বুইয়া তাকে বলেছেন হাস’পাতা’লে নে’বার পথে সিন’হা’কে আরো দুই রা’উন্ড গু’লি করে পু’লিশ। সময় সংবা’দকে তিনি বলেন, গা’ড়ি করে নিয়ে যাচ্ছিল। সে অবস্থায় গু’লিবিদ্ধ লোকটি অক্সি”জেন চেয়েছিল। তখন তাকে আবার দুইটি গু’লি করা হয়।

এরই সূত্র ধরে উখিয়ায় চালক আবুইয়ার বাড়িতে যায় সময় সংবাদের প্রতিবেদক। সেখানে গিয়ে জানা যায়, ঘটনার পর থেকেই আবুইয়া নিরাপত্তা হেফাজতে আছে। তবে তার পরিচি’তজনরা জানান, গু’লি করার ভ’য় দেখিয়ে তাকে এক পু’লিশ কর্মক’র্তা নিয়ে গেছে। হাসপাতা’ল থেকে আসার পর অনেকটাই ভীতসন্ত্রস্ত ছিলেন তিনি।

পরি’চয় গো’প’ন রেখে সময় সংবাদের প্রতি’বেদ’ককে একজন ব’লেন, লা’শ’ দেখে আবুইয়া ভ’য়’ পে’য়েছে। শুধু এই কথাটু’কুই বলেছে। ত্রি’পলের মধ্যে র’ক্ত লেগে’ছিল। সেটা তার বাবা ধুয়ে দিয়েছে। এদিকে পু’লিশের করা এজহারে ঘ’টনা’স্থলে ইন্সপেক্টর লিয়া’কত আ’ত্ম’রক্ষা’র্থে ৪ রাউন্ড গু’লি ক’রেছে বলা হয়েছে। তবে পু’লি”শের করা সু’রত”হালে সিনহার গায়ে ৬টি গু’লি’র গ’ভীর ক্ষ’তে’র কথা উল্লে’খ করা হয়েছে।

সিন’হার মৃ’ত্যু’র পর ৩ জনের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন তৎকালীন বাহারছড়া ত’দ’ন্ত’কেন্দ্রের প্রধা’ন লিয়া’কত। এরমধ্যে ওসি ও এসপিও রয়েছে। হ’ত্যা’র বি’ষয়ে কথা হলেও মা’দ’ক বা অ’স্ত্র উ’দ্ধা’রের কোনো তথ্য ফোনা’লা’পে পাওয়া যায়নি। ৩১ জু’লাই রাত ৯টা ৩০ মিনিটে তৎকালীন বাহা’রছ’ড়া ত’দ’ন্ত’কেন্দ্রের প্রধান লিয়াকত তার ব্যক্তি’গত মোবাইল থেকে তৎকালীন টেকনাফ থা’নার ওসি প্রদীপের অফি’সিয়াল নম্বরে ফো”ন করেন। তিন মিনি’ট কথা বলেন তারা।

এরপর ৯টা ৩৩ মিনিটে মা’লখানা’র ইনচার্জ কনস্টেবল আরি’ফের ব্য’ক্তিগ’ত নম্বরে ফোন করেন। তার সাথে ১ মিনিট কথা বলেন। এরপর ৯টা ৩৪ মিনিটে কক্স’বাজা’রের পু’লিশ সুপা’রের ব্যক্তি’গত ন’ম্বরে ফোন করেন লি’য়াকত। সেখানে তা’দের কথা হয় তিন মিনিট।

কথো’পকথনে লি’য়াকত ঘট’না স’ম্পর্কে এসপিকে জানান। কিন্তু সেখানে মা’দক ও অ’স্ত্র পাওয়ার কোনো ক’থা উল্লেখ করেননি। এরপর ওসি প্রদীপ কুমা’র দা’শের সাথে কথা হয় এসপির। এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ঘট’নাটি ত’দ’ন্ত হচ্ছে। ঘটনায় এসপি’র সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেলে ‘তাকেও আই’নের আ’ওতায় আনা হবে। স্বরাষ্ট্র’মন্ত্রী বলেন, ‘এসপির নাম যদি আসে আম’রা দে’খবো, যার নাম আসে দেখবো। আমাদে’র মান’নীয় প্র’ধা’নমন্ত্রী কা’উকেই ছাড় দিবেন না।’

তিনি আরো বলেন, ‘সাবেক মেজর সিন’হার মৃ’ত্যু’র ঘ’টনা ত’দ’ন্তে যা’রাই দোষী সাব্যস্ত হবে, তা’দেরকে বি’চারে’র আওতা’য় আনা হবে। ত’দন্তের মধ্যে যারা দোষী সা’ব্য’স্ত হবেন কিংবা যা’রা দোষ ক’রেছেন বলে প্র’মাণি’ত হবে ত’দন্ত রি’পোর্ট অ’নুযা’য়ী তাদের বিচার করা হবে।’ গত ৩১ জুলাই রাতে শা’মলাপু’রের একটি পাহা’ড়ি এলা’কায় শুটিং শেষে ফেরার পথে ত’ল্লা’শির সময় পু’লিশের গু’লি’তে নি’হত হন সে’না”বাহি’নীর সা’বেক মেজর সিনহা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!