রিয়ার কল রেকর্ডে চমকে দেওয়া তথ্য, সুশান্তের থেকেও বেশি যাকে ফোন করতেন রিয়া

শুক্রবার সুশান্তকাণ্ডে রিয়া চক্রবর্তীকে ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদ করে ইডি। ১৪ লক্ষ টাকা আয় করে কীকরে ৭৬ লক্ষ টাকা দিয়ে কিনেছিলেন ফ্ল্যাট? কোথা থেকে পেয়েছিলেন টাকা? তা নিয়ে শুক্রবার রিয়াকে প্রায় ন’ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় বলে ইডি সূত্রে দাবি। এদিন রিয়ার বর্তমান ও সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার শ্রুতি মোদিকেও জিজ্ঞাসাবাদ করে ইডি।

ইডি সূত্রে দাবি, রিয়া ত’দন্তে সম্পূর্ণ সহযোগিতা করেননি। খতিয়ে দেখা হয়, রিয়া-সুশান্তের কল রেকর্ডও। সেখানে গত একবছরে রিয়া কাকে কতবার ফোন করেছিলেন তা নিয়ে বিস্তারিত জানা যায়। সেই কল রেকর্ড থেকেও উঠে এসেছে অনেক প্রশ্ন। দেখা গেছে, সুশান্তের থেকেও অনেক বেশিবার রিয়া ফোন করেছে অন্য কাউকে।

কল রেকর্ড বলছে, ১ বছরে রিয়ার স’ঙ্গে সুশান্তের ফোনে কথা হয় ১৩৭ বার। আর ৮০৮ বার ফোনে কথা হয় শ্রুতি মোদির, যিনি রিয়ার বর্তমান ও সুশান্তের প্রাক্তন বিজনেস ম্যানেজার। পরিচালক মহেশ ভট্টের স’ঙ্গেও এই সময়ে রিয়ার ১৬ বার ফোনে কথা হয়। সূত্রের দাবি, ২০ থেকে ২৪ জানুয়ারির মধ্যে সুশান্তকে ২৫ বার ফোন করেন রিয়া চক্রবর্তী।

সুশান্তের ঘনিষ্ঠমহল সূত্রে দাবি, সেই সময়ে সুশান্ত মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। রিয়া ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা সেকথা সকলকে জানানোর কথা বলে সুশান্তকে চাপ দেন। এই পরিস্থিতিতে একদিন সুশান্ত মুম্বই থেকে গাড়িতে করে চণ্ডীগড়ে দিদির বাড়িতে যান। এই সময়ে তাঁকে মুম্বই ফেরার জন্য চাপ দিয়ে ২৫ বার ফোন করেন রিয়া।

অন্যদিকে রিয়ার ঘনিষ্ঠদের দাবি, তাঁর নামে মিথ্যা কথা রটিয়ে, তাঁর বদনাম করা হচ্ছে! ত’দন্তের আগেই তাঁর গায়ে দোষীর তকমা লাগানোর চেষ্টা চলছে! এমনকি কিছু না জেনেই সোশাল মিডিয়ায় তাঁকে কুরুচিকর আ’ক্রমণ করা হচ্ছে! মুম্বইয়ের সান্তাক্রুজ থা’নায় দু’জন ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীর বিরু’দ্ধে এফআইআরও করেছেন রিয়া।

ওই দু’জনের বিরু’দ্ধে কুরুচিকর মেসেজ পাঠানো-সহ ধ’র্ষণের হু’মকি দেওয়ার অ’ভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। এরইমধ্যে কল রেকর্ডস ঘেঁটে এই তথ্যও উঠে এসেছে, ৮ থেকে ১৪ জুন, অর্থাৎ‍ মৃ’ত্যুর আগের দিন পর্যন্ত রিয়ার স’ঙ্গে সুশান্তের কোনও কথা হয়নি! যদিও, সুশান্ত যেহেতু একাধিক সিম ব্যবহার করতেন, তাই অন্য কোনওভাবে তাঁদের মধ্যে কথা কিংবা যোগাযোগ হয়েছিল, কি না তা এখনও স্পষ্ট নয়।

সূত্রের দাবি, রিয়া গত ১ বছরে বাবার স’ঙ্গে ১১৯২ বার ফোন করেন। ভাই সৌভিক চক্রবর্তীকে ফোন করেন ১০৬৯ বার। সুশান্ত ও রিয়া মিলে তিনটি সংস্থা খুলেছিলেন। তার মধ্যে একটি সংস্থার ডিরেক্টর পদে নাম ছিল সুশান্ত, রিয়া ও রিয়ার ভাই সৌভিকের। সংস্থাটির ঠিকানা দেখানো হয় নভি মুম্বইয়ে রিয়ার বাবার ফ্ল্যাট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!