Home / করোনা নিউজ / সুখবরঃ আশার আলো দেখিয়ে এবার করোনার নতুন চিকিৎসার সুখবর দিলেন বিজ্ঞানীরা

সুখবরঃ আশার আলো দেখিয়ে এবার করোনার নতুন চিকিৎসার সুখবর দিলেন বিজ্ঞানীরা

Advertisement
Advertisement

বিশ্ব যখন কোভিড-১৯ এর ভ্যা’কসিনের অ’পেক্ষায় রয়েছে, ঠিক সেই সময়ে করো’না মো’কাবিলায় প্রযু’ক্তিনির্ভর অ্যা’ন্টিবডি-থেরাপিভিত্তিক এক নতুন চি’কিৎসা পদ্ধতির কার্যকারিতা নিয়ে আশাবাদী হয়ে উঠেছেন বি’জ্ঞানীরা।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়’টার্সের এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, করো’না প্রতিরোধে মনো’ক্লোনাল অ্যান্টিবডি থে’রাপির সাফল্যের ব্যাপারে ‘অনে’কটাই নি’শ্চিত’ যুক্ত’রাষ্ট্রের ‘শীর্ষ সং’ক্রমণ রোগ বিশে’ষজ্ঞ ও হো’য়াইট হা’উসের ক’রোনা টা’স্কফোর্সের সদস্য ড. অ্যান্থনি ফাউচি।

জুলাই মাসের শেষ সপ্তাহে হো’য়াইট হাউসের চিফ অব স্টাফ মার্ক মিডোস জানিয়েছিলেন, যুক্ত’রাষ্ট্র অল্প’দিনের মধ্যেই করো’না’ভা’ইরাসের ন’তুন চিকিৎসা পদ্ধ’তির ঘোষণা দিতে পারে। এবিসি নিউজে প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে তিনি আভাস দিয়েছেন, করো’না প্রতিরোধে প্রযুক্তিনির্ভর থেরাপিভিত্তিক এক নতুন চিকিৎসা প’দ্ধতির ঘোষণা দিতে যাচ্ছে হোয়াইট হাউস।

রয়’টার্সের সোমবারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ক্যানসারের মতো রোগের চিকিৎসায় যেমন করে বিভিন্ন প্রযুক্তিভিত্তিক থেরাপি দেওয়া হয়; তেমন করেই করো’না চিকিৎসার জন্য একটি থেরাপিভিত্তিক ব্যবস্থা উন্নয়নের কাজ চলছে। এই পদ্ধতিতে সুনির্দিষ্ট ভা’ইরাসকে (কোভিড ১৯) প্র’তিরোধে সক্ষম কৃ’ত্রিম অ্যা’ন্টিবডি তৈরি করে তা থে’রাপির মধ্য দিয়ে মানুষের শরীরে প্রয়োগ করা হবে।

রয়টার্স জানিয়েছে, যু’ক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ বিজ্ঞানীরা এই মনোক্লোনাল অ্যা’ন্টিবডি উন্নয়নে কাজ করছেন। ড. ফাউচি বলেছেন, এই অ্যা’ন্টিবডি যে কোভিড ১৯ প্রতিরোধে সক্ষম হবে সে ব্যাপারে তিনি ‘অনেকটাই নিশ্চিত’। একটি ভা’ইরাস যখন মানুষের শরীরের প্রাথমিক প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ভেঙে দিতে সক্ষম হয়, তখন প্রাকৃতিকভাবেই শরীরে অ’ভ্যন্তরেরই সুনির্দিষ্ট কোনও জায়গা থেকে প্রতিরোধ তৈরি হয়।

এটি হয় শরীরে থাকা প্রতিরক্ষামূলক প্রোটিন কিংবা অ্যান্টিবডির কারণে। রয়টার্স জানিয়েছে, মা’র্কিন বিজ্ঞানীরা করো’না মোকাবিলায় যে মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডির উন্নয়ন ঘটাচ্ছেন, তা আসলে প্রাকৃতিক প্রতিরক্ষামূলক প্রোটিনেরই অনুলিপি হবে।করো’নার থাবায় বিপর্যস্ত সারা বিশ্ব। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে এই মারণভা’ইরাসে।

এখনও কার্যকর কোনও চিকিৎসা পদ্ধতি উদ্ভাবন করা যায়নি। বিশ্বে ভ্যাকসিন আবিষ্কারের দৌড়ে আছে ১৭৩টি উদ্যোগ। এর মধ্যে তৃতীয় ধাপের পরীক্ষায় পৌঁছাতে পেরেছে তিনটি, তবে কোনও ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত সাফল্যের ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। রাশিয়া তাদের একটি ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত সাফল্য দাবি করলেও তা নিয়ে সংশয় রয়েছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের। এমন পরিস্থিতিতে নতুন এক চিকিৎসা পদ্ধতি নিয়ে আশাবাদের কথা শোনা গেলো।

অবশ্য কোভিড-১৯ চিকি’ৎসায় অ্যা’ন্টিবডির ভূমিকা এখনও প্র’শ্নাতীত নয়। বিজ্ঞানীরা এখনও এ নিয়ে কাজ করছেন। তবে ওষুধ প্রস্তুত’কারীরা আত্মবিশ্বাসী যে, যথাযথ অ্যান্টিবডি ব্যবহার করতে পারলে এই প’দ্ধতিতে নি’শ্চিত সাফল্য আসবে।

Advertisement
Advertisement

Check Also

দেশে করোনার আরো নতুন ৫ উপসর্গ, জানুন সেগুলো কি কি?

Advertisement Advertisement আনিস সাহেব (ছ’ন্দ নাম) অফিস থেকে ফি’রেই ক্লা’ন্তি বো’ধ কর’ছিলেন। অফিস থেকে ‘ফিরলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!