সুশান্তের বাবার অভিযোগে পরিস্কার করে বললেন রিয়া নিষ্ঠুর ভাবে কি করতো সুশান্তর সাথে – OnlineCityNews

সুশান্তের বাবার অভিযোগে পরিস্কার করে বললেন রিয়া নিষ্ঠুর ভাবে কি করতো সুশান্তর সাথে

বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃ’ত্যুতে পুরো নিস্তব্দ ছিলেন তার পরিবার, এমনকি তার বাবা কেকে সিংহও। তবে এবার ঠিক সুশান্তের প্রেমিকার বি’রুদ্ধেই যেন ছেলের মৃ’ত্যুর দায় । অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী ও তার পরিবারের বি’রুদ্ধে পাটনা থা’নায় এফআইআর দায়ের করেছেন সুশান্তের বাবা।

সুশান্তের বাবা এফআইআরে মা’রাত্মক অ’ভিযোগ তুলে ধরেছেন রিয়ার বি’রুদ্ধে। রিয়ার বি’রুদ্ধে ভারতীয় দন্ডবিধির জামিন অযোগ্য (৩০৬, ৩৪১, ৩৪২, ৩৮০, ৪০৬, ৪২০) ধারায় মা’মলা দায়ের করা হয়েছে। অ’ভিযোগে তিনি জানিয়েছেন, রিয়ার প্রথম থেকেই নজর ছিল তার ছেলের অর্থ এবং সম্পত্তির দিকে। সুশান্তের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে শপিং আর বিদেশ ভ্রমণই নয়,

জোর করে খুলিয়েছিলেন তিনটি কোম্পানি। আর সেই তিনটি কোম্পানির অংশীদার রিয়া এবং তার ভাই সৌভিক চক্রবর্তী। মার্চ মাসে হঠাৎ করেই সুশান্তের এক বিশ্বস্ত দেহরক্ষীকে সরিয়ে দেন রিয়া। সমস্যা করেন সুশান্তের কর্মচারীদের সঙ্গেও। সুশান্ত মানসিক সমস্যায় ভুগলে কিছুতেই তাকে চিকিৎসকের কাছে বা বাড়ির লোকের কাছে জানাতে দিতে চাননি রিয়া।

সুশান্ত কার সঙ্গে মিশবেন বা কথা বলবেন তা ঠিক করত রিয়ার পরিবার। সুশান্তের ফ্ল্যাটের যাবতীয় দায়িত্ব জোর করে নিজের ঘাড়ে তুলে নিয়েছিল রিয়া। এমনকি বাড়ি থেকে বেশ কিছু জিনিস সরিয়ে নিয়েছে বলে অ’ভিযোগ সুশান্তের বাবার। পরিবারের সঙ্গে সুশান্তের ভালো যোগাযোগ থাকুক এমনটা চাইত না রিয়া। সুশান্তকে চেন দিয়ে বেঁধে রাখতেন তিনি এমনও অ’ভিযোগ করেছে সুশান্ত ঘনিষ্ঠরা।

এছাড়াও একবার খুব কড়া ডোজের ওষুধ খাইয়ে দিয়ে বাইরে সুশান্তের বন্ধুদের বলেছিল ‘ওর ডেঙ্গু হয়েছে’। সুশান্তের ঘনিষ্ঠ বৃত্তের মধ্যে ঢুকে পড়েছিল রিয়া। ভীষণভাবে সুশান্তের কাছে ভালো সাজার চেষ্টা করত। কিন্তু তাদের সঙ্গে রিয়ার কোনও যোগাযোগই ছিল না।

এমনকী সুশান্তের মৃ’ত্যুর পর অঙ্কিতা লোখন্ডে, কৃতি শ্যানন ফোন করে সুশান্তের বাবার সঙ্গে কথা বললেও রিয়া কোনওদিন একটাও ফোন করেননি। বাবার আক্ষেপ, অঙ্কিতার মতো মেয়ে সুশান্তের জীবনে থাকলে এরকম দুর্ঘ’টনা ঘটত না। সুশান্তের কার্ড থেকে একবছরে ১৭ কোটি টাকা খরচ করেছে রিয়া। ইউরোপ ভ্রমণ করেছে সুশান্তের পয়সাতেই।

বিহার পু’লিশের ত’দন্তকারীদের একটি দল গত দুদিন ধরে মুম্বাইতেই রয়েছেন। মুম্বাই পু’লিশকে না জানিয়েই বেশ কিছু জনের সঙ্গে কথা বলেছেন তারা। আইনি নোটিশ গেছে রিয়ার বাড়িতেও। ত’দন্তে সাহায্য না করলে তাকে গ্রে’ফতার করে পাটনা নিয়ে আসা হবে এমনটাই জানিয়েছে পু’লিশ। বুধবার (২৯ জুলাই) তাদের মুম্বাই পু’লিশের সঙ্গে একটি বৈঠকেরও কথা রয়েছে।

সূত্রঃ সময় নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *