বন্যার পানিতে নেমে ত্রাণ বিতরণ করে যা বললেন হিরো আলম – OnlineCityNews

বন্যার পানিতে নেমে ত্রাণ বিতরণ করে যা বললেন হিরো আলম

বৃষ্টিতে ভিজে, বানের পানি ঠেলে ব’ন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ দিয়ে এলেন হিরো আলম। বগু’ড়া জে’লার সারিয়াকান্দি উপজে’লার যমুনার পানিতে তলিয়ে যাওয়া গ্রামে আজ সোমবার সকালে ত্রাণ নিয়ে যান আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম। বৃষ্টিতে ভিজে একসা হয়ে গেছেন, তবুও থামেননি। ইঞ্জিন চালিত নৌকা নিয়ে চলে গেছেন ব’ন্যার্তদের ঘরে ঘরে।

সারিয়াকন্দি থেকে মোবাইল ফোনে কালের কণ্ঠকে হিরো আলম বলেন, আমি সামান্য মানুষ। এইখানে অনেক মানুষ খেয়ে না খেয়ে আছে। তাদের সামান্য কিছু সহায়তা করতে পেরেছি। আরো সহায়তা দরকার। আমা’র মনে হয় সমাজের বিত্তবানদের এইসব ব’ন্যার্ত মানুষদের পাশে দাঁড়ানো দরকার।

হিরো আলমের ত্রাণের পরিমাণ এক লাখ টাকা। যারমধ্যে ৫০ হাজার টাকা পেয়েছিলেন অনন্ত জলিলের সিনেমায় চুক্তিব’দ্ধ হয়ে। হিরো আলম বলেন, অনন্ত জলিল আমাকে চলচ্চিত্র থেকে বাদ দিয়েছেন। তবে তিনি আমাকে চুক্তিব’দ্ধ হওয়ার সময় ৫০ হাজার টাকা দিয়েছিলেন।

বাদ দেওয়ার পর সেই টাকা আমি ফেরত দেওয়ার চেষ্টা করেছি। কিন্তু উনি নেননি। বিভিন্নভাবে টাকা’টা দেওয়ার চেষ্টা করে ব্য’র্থ হওয়ার পর ভাবলাম, ব’ন্যার্তদের মাঝে বিলিয়ে দিই। হিরো আলম বলেন, ৫০ হাজার টাকার স’ঙ্গে আরো ৫০ হাজার টাকা যোগ করে এক লাখ টাকার একটা ফান্ড তৈরি করি।

একটি লু’ঙ্গি ও একটি শাড়ি ও টাকার খাবার-মোট এক হাজার টাকা মাথাপিছু ১০০ পরিবারকে দিয়েছি। ব’ন্যায় অনেকেই কষ্ট পাচ্ছে, ভাবলাম সামান্য চেষ্টা করি। যার জন্য এই পরিকল্পনাই করলাম। সাধ্য হলে আরো সহায়তা করব।

বগু’ড়ার এরুলিয়া ইউনিয়নের এরুলিয়া গ্রাম থেকে উঠে আসেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। আলোচনা ও সমালোচনার কেন্দ্রে পরিণত হয়ে হিরো আলম ওরফে আশরাফুল আলম ঢাকায় চলে আসেন। স্থানীয়ভাবে তিনি ডিশ আলম হিসেবেও পরিচিত। কেননা এরুলিয়ায় তাঁর কেবল নেটওয়ার্কের ব্যবসা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *