অবশেষে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে যেদিন আসছে সিদ্ধান্ত – OnlineCityNews

অবশেষে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে যেদিন আসছে সিদ্ধান্ত

ক’রোনা মহা’মা’রির কার’ণে ব’ন্ধ রয়ে’ছে দেশের সব শিক্ষা’প্রতিষ্ঠান। এদি’কে প্রতিদিন বেড়ে’ই চলেছে এই ভা’ইরাসের সংক্র”মণ। এমন অবস্থা’য় ঈদু’ল আজহার পর শু’রু হবে একাদশ শ্রেণির ভর্তি কার্য’ক্রম। আ”গস্টে ক’রোনা পরি’স্থিতি পর্যবেক্ষণের পরই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খো’লার সিদ্ধা’ন্ত নেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

মন্ত্র’ণা’লয়ের একটি নির্ভ’রশীল সূত্রে এমন তথ্য জানা গেছে। ক’রো’না সংক্র’মণে’র মধ্যে সর’কার গত ১৭ মার্চ থেকে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘো’ষণা করে। দীর্ঘ দুই মাস ল’কডা’উনের পর অফিস-কা’রখানা-যান’বাহন চালু ক’রে ‘কিছু বিধি’নিষেধ শিথি’ল করা হ’লেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খো’লার সি’দ্ধান্ত নেয়’নি সর’কার। ঈ’দুল আজ’হার ছুটির পর ৬ আগ’স্ট পর্যন্ত ব’ন্ধ থাকবে সব ধর’নের শিক্ষা প্র’তিষ্ঠান। ক’রোনা পরি’স্থিতি’র জন্য পেছানো

হয়েছে এ বছ’রে এইচএস’সি পরীক্ষা। এসএসসি ও স’মমা’নের ফল প্রকা’শেও বিলম্ব হয়। গত মে মাসের ৩১ তারিখে এ ফল প্রকাশ হলেও একাদশ শ্রেণি’র ভর্তির কার্য’ক্রম এখনো শুরু হয়নি। গত কয়েক বছর ধরে ঢাকা বোর্ডের মাধ্যমে কেন্দ্রী’য়’ভাবে দে’শের সব সরকা’রি-বে’সরকারি কলে’জের একাদশ শ্রেণিতে শি’ক্ষার্থী ভ’র্তি করা হচ্ছে।

গতকা’ল বু’ধবার ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর মু. জি’য়াউল হক জানান, একাদশ শ্রেণির ভ’র্তির কা’র্যক্রম শুরুর করার মতো প্রস্তুতি বো’র্ডের আছে। তবে এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি কবে থেকে ভর্তি কার্যক্রম শুরু হবে। আম'রা মন্ত্রণা’লয়ে’র সি’দ্ধান্তের অপে’ক্ষায় আছি।

এ বিষয়ে শিক্ষা ম”ন্ত্রণালয়ের এক জ্যেষ্ঠ কর্মক’র্তা জানান, একাদশ শ্রেণির ভর্তি ঈদের ছুটির পরই শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে। শিক্ষা বোর্ডগুলোর ভ’র্তি কা’র্যক্রম পরি’চালনার সব প্রস্তু’তিও আছে। যে কোনো সময় এডমিশ’ন সার্কু’লার জারি করা হতে পারে।

শিক্ষা প্র’তিষ্ঠান খোলা’র বিষয়ে দায়ি’ত্বশীল এক কর্মক’র্তা জানান, আগস্ট মাস করো’না প’রিস্থিতি পর্যবেক্ষ’ণের পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এখনো করো’না পরিস্থিতি অনুকূলে নেই। গড় হিসেবে মৃ’তে’র সংখ্যা ৩০-এর ওপর। আ’ক্রা’ন্তে’র হারও সন্তোষজনক নয়। আক্রা’ন্তের হার দুই সংখ্যায় আর মৃ'তের সং’খ্যা শূন্যের কোঠায় এলে বোঝা যাবে মহা’মারী নিয়’ন্ত্রণ হয়েছে। এখনো আম'রা ক”রোনায় অনি’শ্চিত গন্তব্যে আছি।

সং’শ্লিষ্টরা জা’নিয়েছেন, শিক্ষা বর্ষে প্রায় পাঁচ মাস বন্ধে যে অপূ’রণী’য় ক্ষ’তি হয়েছে পুরো শি’ক্ষাব্যবস্থায় তা থেকে উত্তর’ণে’র বেশ কিছু উপায় নিয়ে কাজ’ করছে শিক্ষা প্রশাসন। প্রাথমিক, মাধ্যমিক স্তরে সি’লেবাস কমা’নো, শিক্ষা ক্যালে’ন্ডারের ছুটি কমা’নো, বার্ষিক পরীক্ষা ডি’সেম্বরে নেও’য়া অথ’বা চলতি শিক্ষা বর্ষ আরও বৃদ্ধি করে আগা’মী বছরের প্রথম দুই-তিন মাস পর্যন্ত বাড়া’নোর চি’ন্তাও করছেন সংশ্লি’ষ্টরা।

তবে ‘কোন পদ্ধ’তি কা’র্যকর করা হবে- এখনো সি’দ্ধান্ত হয়নি। ঈদের পর অ’ন্তত আগস্ট মাসে’র ক’রো’না পরিস্থিতি পর্য’বে’ক্ষণ ক’রতে হবে। জানা যায়, ক’রোনা পরি’স্থিতিতে শিক্ষা প্র’তিষ্ঠান বন্ধ হলেও অ’নলাইন, টেলিভিশনে ক্লাস পরিচালনা করছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়। এ পদ্ধতি শত’ভাগ কা’র্যকর নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

করো’না’কালে সব ধরনে’র শিক্ষা প্রতি’ষ্ঠান বন্ধ থাকা’য় দেশের প্রায় চার কোটি শিক্ষার্থী এখন ঘর’বন্দি। ডিশ সংযোগ সুবিধা, টিভি না থাকা, ইন্টারনেট দুর্বল, অনেক জায়গায় ইন্টা’রনেট সুবিধা না থাকা, এমনকি অনলা’ইন ক্লাস নেওয়ার ডি’ভাইস/মোবাইল অভি’ভাবক’দের সহ’জলভ্য না হওয়ায় গ্রাম-শহরের সব শি’ক্ষার্থীর কাছে পৌঁছেনি অনলা’ইন শিক্ষা পদ্ধতি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *