এই মেয়েটির হাতের লেখায় মুগ্ধ গোটা বিশ্ব, কিভাবে সম্ভব গবেষণায় প্রকাশ আসল রহস্য – OnlineCityNews

এই মেয়েটির হাতের লেখায় মুগ্ধ গোটা বিশ্ব, কিভাবে সম্ভব গবেষণায় প্রকাশ আসল রহস্য

মৌমিতা সাহা: সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে যারা যুক্ত আছেন তারা জানবেন যে, একটি হাতের লেখা যা অনেকদিন আগেই সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয়েছিল এবংএই মেয়েটির হাতের লেখায় মুগ্ধ গোটা বিশ্ব, কি আছে এই লেখার মধ্যে? গবেষণায় প্রকাশ আসল রহস্য মৌমিতা সাহা:

সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে যারা যুক্ত আছেন তারা জানবেন যে, একটি হাতের লেখা যা অনেকদিন আগেই সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয়েছিল এবং প্রচুর বাহবা পেয়েছিল। হাতের লেখা দেখলে মনে হয় যেন সেটি কম্পিউটারে টাইপ করা। কিন্তু না সেটি নিজে হাতে লেখা!

আর এই অত্যাশ্চর্য সুন্দর হাতের লেখা লিখেছেন মাত্র অষ্টম শ্রেণীতে পড়া এক ছাত্রী, যার নাম প্রকৃতি মাল্লা।এই অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী প্রকৃতি মাল্লা তার এই হাতের লেখার জন্য সারা বিশ্বে পরিচিত হয়ে ওঠেন। শুধু তাই নয় এই বালিকা তার সুন্দর হাতের লেখার জন্য একটি খেতাব’ও পেয়েছেন। এবং নেপালের সশস্ত্র বাহিনী থেকেও তাকে পুরস্কৃত করা হয়েছে।

এই সুন্দর ছোট্ট হস্ত লেখিকা শিল্পীর বাড়ি নেপালে। ‘সৈনিক আওয়াসিয়া’ মহাবিদ্যালয়ের ছাত্রী। কয়েক মাস আগে নেপালের‌ই এক ভদ্রলোকের চোখে পড়ে তার এই হাতের লেখা এবং তিনি তার সেই হাতের লেখায় মুগ্ধ হয়ে, সেই লেখাটির ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন।

আর তারপরেই কিছুদিনের মধ্যেই এই বালিকার লেখা সবার নজরে আসে এবং শুরু হয় তার হাতের লেখা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড়। কি কারণে তার এই হাতের লেখা নিয়ে এতো তোলপাড় আসুন ছোট্ট করে জেনে নেই- প্রথমেই বলেছি তার হাতের লেখা দেখলে মনে হয় যেন কম্পিউটারে টাইপ করা,

আবার কখনো কখনো তার হাতের লেখা এত বেশি সুন্দর হয় যা কম্পিউটারের এমএস ওয়ার্ড এর চেয়েও বেশি সুন্দর দেখায়। তার লেখা বিশেষজ্ঞরা পর্যবেক্ষণ করে বলেছেন, তার প্রত্যেকটি লেখার মাঝখানের ফাঁকা জায়গা গুলো প্রত্যেকটি সমান।

তার লেখা নিখুঁত এর প্রায় কাছাকাছি। আর তাই তার এই লেখা শুধু নেপাল নয় সারা বিশ্বে এখনো পর্যন্ত সবচেয়ে সেরা হয়ে রয়েছে। এই ছোট্ট অষ্টম শ্রেণীর হস্তলেখিকা শিল্পী ‘প্রকৃতি মাল্লা’ এখন সবার সুন্দর হাতের লেখা লেখার অনুপ্রেরণা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *