করোনা আক্রান্ত মা যতক্ষণ বেঁচে রইলেন, হাসপাতালের জানলায় ততক্ষণ বসে রইল ছেলে!‌

করো’না ভা’ইরাস সব পাল্টে দিয়েছে। পরিবার, পরিজন, আত্মীয়, বন্ধুর সঙ্গে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে এই মারণ ব্যাধি। দেখা করার উপায় তো নেই‌–ই, এমনকি অ’সুস্থ, মৃ'ত পরিজনকেও দেখার উপায় নেই কারওর। অদেখাতেই বিদায় জানাতে হচ্ছে সবাইকে। কিন্তু তবু, কোথাও যেন র’ক্তের সম্পর্ক আলাদা হয়ে যায় সব কিছু থেকে। ঠিক যেমন এক্ষেত্রে ঘটল।

ঘটনাটি ঘটেছে প্যালেস্তাইনে। একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়, যেখানে দেখা যাচ্ছে, হাসপাতা’লে কয়েকতলা ওপরে কাচের দেওয়ালের পাশে ভিতরের দিকে তাকিয়ে বসে আছেন এক ব্যক্তি। বয়স বেশি নয়। কিন্তু কেন এমন হাসপাতা’লের জানলার পাশে বসে আছেন তিনি?‌ সেই বিষয়ের সন্ধান করতেই বেরিয়ে এসেছে অবাক করা তথ্য।

ওই ব্যাক্তির নাম জিহাদ আল সুয়াইতি। বয়স ৩০। তাঁর মা করো’না আক্রান্ত হয়ে এই হাসপাতা’লেই ভর্তি রয়েছেন। সরকারি হাসপাতা’লের ইন্টেনসিভ কেয়ার ইউনিটে ভর্তি মা–কে দেখতে যাওয়ার অনুমতি স্বাভাবিকভাবেই পায়নি ছেলে। তাই সে অপেক্ষা করেছে জানলার পাশে বসে।

শেষ সময়ে মায়ের কাছ থেকে সরে যেতে চায়নি। জানলা দিয়েই সে দেখেছে, মা মৃ’ত্যুর কোলে ঢলে পড়ছে। যতদিন মা হাসপাতা’লে ভর্তি ছিলেন, ততদিন রোজ রাতে ওই জানলার ধারে বসে থাকতেন এই যুবক। মহম্মদ সাফা (‌Mohamad Safa)‌ নামে একজন এই ছবিটি শেয়ার করে লিখেছেন এই বিষয়টি।

করো’না আক্রান্ত মায়ের আগে থেকেই ছিল লিউকোমিয়া। পাঁচদিন তাঁকে ভর্তি থাকতে হয়েছিল হাসপাতা’লে। সেই যুবক সন্তান পরে জানিয়েছেন, আমা’র অসহায় লাগতো। তাই হাসপাতা’লের জানলার ধারে বসে থাকতাম। মাকে দেখতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!