অবশেষে করোনার মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলোর জন্য সুখবর পাওয়া গেল – OnlineCityNews

অবশেষে করোনার মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলোর জন্য সুখবর পাওয়া গেল

সময়ের সঙ্গে মহামারিতে রূপ নেওয়া প্রাণঘাতী করো’না ভা’ইরাসের ভয়াবহ তাণ্ডবের মাঝে আটকে গেছে পাঠদানের অনুমোদন পাওয়া বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের স্বীকৃতি কার্যক্রম। নিম্নমাধ্যমিক, মাধ্যমিক ও কলেজ পর্যায়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তালিকা চূড়ান্ত হলেও তা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে ফাইলবন্দি হয়ে রয়েছে।

তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের স্বীকৃতি কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানা গেছে। মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অ’তিরিক্ত সচিব ও স্বীকৃতি কমিটির প্রধান সমন্বয়ক মোমিনুর রশিদ আমিন বলেন, এমপিওভুক্তির আগের ধাপ হচ্ছে স্বীকৃতি।

যেসব প্রতিষ্ঠান যোগ্যতার ভিত্তিতে আবেদন করেছে তাদের ফাইল চালাচালি হচ্ছে। তবে করো’নার কারণে গতি কিছুটা ধীর। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে দ্রুতই এটি কার্যকর হবে। তিনি বলেন, পাঠদানের অনুমোদনের দুই বছর পর স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

ইতিমধ্যে যাচাই-বাছাই করে নিম্নমাধ্যমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ে বেশকিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। করো’না পরিস্থিতির কারণে এ সংক্রান্ত ফাইল অনুমোদন হচ্ছে না বলেও জানিয়েছেন তিনি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করতে গত দুই বছর নতুন প্রতিষ্ঠানের স্বীকৃতি বন্ধ ছিল। দীপু মনি শিক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়ার পর স্বীকৃতির কাজ নতুন করে শুরু হয়। স্বীকৃতি দেওয়ার পর এসব প্রতিষ্ঠানকে ধীরে ধীরে এমপিওভুক্তির আওতায়ও আনা হবে।

এদিকে আবার অভিভাবকরা চান অটো পাস। পরীক্ষা ছাড়াই কলেজ পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের পরবর্তী ক্লাসে অটো-পাস দেওয়ার দাবি জানিয়েছে অভিভাবক ঐক্য ফোরাম সোমবার (১৩ জুলাই) এক বিবৃতিতে ফোরামের সভাপতি জিয়াউল কবির দুলু এ দাবি জানান। জিয়াউল কবির দুলু বলেন, ‘করো’না পরিস্থিতিতে দীর্ঘদিন ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ রয়েছে।

যার কারণে কলেজ শিক্ষার্থীদের জন্য একাদশ শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণিতে ওঠার পরীক্ষা আয়োজন সম্ভব হয়নি। বর্তমানে পরীক্ষা দিয়ে পরবর্তী ক্লাসে উত্তীর্ণ হওয়া অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। তাই অটো-পাস না দিলে শিক্ষার্থীদের একটি বছর নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘ইতোমধ্যে রাজধানীর কিছু কলেজ অটো-পাস দিয়ে তাদের শিক্ষার্থীদের একাদশ শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণিতে উন্নীত করেছেন। ক্লাস উন্নীত করতে এক দেশে একাধিক আইন হতে পারে না। কোনো প্রতিষ্ঠান চাইলে অটো-পাস দিতে পারবে, আর অন্যরা দিতে পারবে না এমনটা হতে পারে না।

এ অবস্থায় বাকি প্রতিষ্ঠান অটো-পাস না দিলে বড় ধরনের বৈষম্য তৈরি হবে। তাই অটো-পাসের বিষয়ে সরকারের সুনির্দিষ্ট ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন অভিভাবকরা।’ করো’না পরিস্থিতির কারণে রাজধানীর নটরডেম কলেজ, রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ,

উত্তরা কমার্স কলেজসহ বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের দ্বাদশ শ্রেণিতে উন্নীতের জন্য পরীক্ষা আয়োজন করতে না পারায় অটো-পাস দিয়ে পরবর্তী ক্লাসে উন্নীত করেছে। দ্বাদশ শ্রেণিতে ক্লাস শুরু করতে তাদের ভর্তি ফি ও বেতন পরিশোধ করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। অন্য প্রতিষ্ঠান সরকারের নির্দেশনার অপেক্ষায় রয়েছেন বলে জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *