যে কারণে ‘তিন’ দিনের রিমান্ডে ডা. সাবরিনা আরিফ – OnlineCityNews
Breaking News
Home / বাংলা হেল্‌থ / যে কারণে ‘তিন’ দিনের রিমান্ডে ডা. সাবরিনা আরিফ

যে কারণে ‘তিন’ দিনের রিমান্ডে ডা. সাবরিনা আরিফ

Advertisement
Advertisement

করো’নার নমুনা পরীক্ষায় প্রতারণা মা’মলায় জেকেজি’র চেয়ারম্যান, জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতা’ল থেকে বহিষ্কৃত ডা. সাবরিনা আরিফের তিনদিনের রি’মান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। সোমবার তাকে আদালতে হাজির করে চারদিনের রি’মান্ডে চেয়েছিল পু’লিশ। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম শাহিনুর রহমান তার তিন দিনের রি’মান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে, রোববার মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আবদুল মান্নান স্বাক্ষরিত এক অফিস জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতা’ল থেকে সাবরিনাকে বহিষ্কার করা হয়। ওই আদেশে বলা হয়, ডা. সাবরিনা জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতা’লে কর্মরত অবস্থায় বেসরকারি প্রতিষ্ঠান জেকেজির চেয়ারম্যান হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

করো’না টেস্টের ভুয়া রিপোর্ট ও অর্থ আত্মসাতের সঙ্গে জড়িত ছিলেন বলে পু’লিশ তাকে গ্রে’ফতার করেছে। সরকারি কর্মক’র্তা হয়ে সরকারের অনুমতি ব্যতীত বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান পদে অধিষ্ঠিত থাকা এবং অর্থ আত্মসাৎ সরকারি কর্মচারি (শৃঙ্খলা ও আপিল), বিধিমালা ২০১৮ অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অ’প’রাধ।

সে জন্য ডা. সাবরিনাকে সরকারি কর্মচারি (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা ২০১৮-এর ১২ (১) বিধি অনুযায়ী সাময়িক বরখাস্ত করা হলো। গতকাল (সোমবার) দুপুরে আলোচিত চিকিৎসক সাবরিনাকে তেজগাঁও বিভাগীয় উপ-পু’লিশ (ডিসি) কার্যালয়ে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে গ্রে’ফতার করে পু’লিশ।

করো’না ভা’ইরাস (কোভিড-১৯) নমুনা পরীক্ষা করা নিয়ে জালিয়াতির অ’ভিযোগে গ্রেপ্তার জেকেজি হেলথ কেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা চৌধুরীকে আদালতে নেওয়া হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতের কাছে ৪ দিনের রি’মান্ড আবেদন করবে পু’লিশ। সোমবার তাকে আদালতে হাজিরের উদ্দেশে নেওয়া হয়।  এর আগে রোববার তেজগাঁও জোনের একটি টিম তাকে গ্রেপ্তার করে। পরে পু’লিশি হেফাজতে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

প্রসঙ্গত, জেকেজির মাঠকর্মীরা ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর, সাভার, কেরানীগঞ্জ ও নরসিংদীসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে করো’না উপসর্গ দেখা দেওয়া মানুষের নমুনা সংগ্রহ করতো। প্রতি রিপোর্টে পরীক্ষার কথা বলে ৫-১০ হাজার টাকা নিতো। আর বিদেশিদের কাছ থেকে নিতো ৮০ থেকে ১০০ ডলার। সেই হিসাবে করো’না পরীক্ষার ভুয়া রিপোর্টে প্রতিষ্ঠানটি প্রায় ৮ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে পু’লিশের ধারণা।

Advertisement
Advertisement

Check Also

ডায়াপার ব্যবহারে শিশুর যেসব ক্ষতি হয়

Advertisement Advertisement শিশুর ডায়াপার ব্যবহারের যেমন সুবিধা রয়েছে। তেমনিই আবার অসুবিধাও রয়েছে। শিশুর কোমল সংবেদনশীল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!