জানা গেল কিভাবে বিশেষ চাবি দিয়ে মোটরসাইকেল চুরি করেছে, জাল কাগজে বিক্রি করে – OnlineCityNews

জানা গেল কিভাবে বিশেষ চাবি দিয়ে মোটরসাইকেল চুরি করেছে, জাল কাগজে বিক্রি করে

চট্টগ্রামে আন্তঃজে’লা মোটরসাইকেল চো’র চক্রের সাত সদস্যকে গ্রে’ফতার করেছে পু’লিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে চারটি চোরাই মোটরসাইকেল ও মোটরসাইকেল চু’রির ‘মাস্টার কি’ (বিশেষ চাবি) জ’ব্দ করা হয়েছে।

শনিবার (১১ জুলাই) দিনভর নগরের বিভিন্ন এলাকা ও মিরসরাই উপজে’লার জোরারগঞ্জে অ’ভিযান চালিয়ে তাদের গ্রে’ফতার করা হয়।গ্রে’ফতারকৃতরা হলেন- দলনেতা মেহেদী হাসান হৃদয়, সমীর কান্তি বনিক, মিজানুর রহমান সম্রাট, বেলায়েত হোসেন বাদশা ওরফে বেলাল, অনিক দেবনাথ, রেজাউল করিম বাচ্চু ও মো. আসাদুজ্জামান।

কোতোয়ালী থা’নার ওসি মোহাম্মদ মহসীন জাগো নিউজকে বলেন, ‘গো’পন সংবাদের ভিত্তিতে অ’ভিযান চালিয়ে নগরের জুবিলী রোড এলাকা থেকে মোটরসাইকেল চোর চক্রের মূলহোতা মেহেদী হাসান হৃদয় ও সমীর কান্তি বনিককে গ্রে’ফতার করা হয়।

পরে নগরের আকবরশাহ সলিমপুর এলাকা থেকে একই চক্রের আরও দুই সদস্য মিজানুর রহমান সম্রাট ও বেলায়েত হোসেন বাদশাকে গ্রে’ফতার করা হয়। তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে মিরসরাইয়ের জোরারগঞ্জ থেকে চোরাই মোটরসাইকেল বিক্রেতা

আসাদুজ্জামান, রেজাউল করিম বাচ্চু ও অনিক দেবনাথকে গ্রে’ফতার করে টিম কোতোয়ালী।’ তিনি বলেন, ‘আসামিরা বিশেষ চাবি (মাস্টার কি) ব্যবহার করে মোটরসাইকেল চুরি করে নিয়ে যায়। চুরির ক্ষেত্রে তারা অনেক সময় গাড়িতে লাগানো তালা

বিশেষ কৌশলে ভেঙে ফেলে। চক্রের সদস্যরা শহর এলাকা থেকে চুরি করে গ্রামে চোরাই মোটরসাইকেলগুলো বিক্রি করে। অনেক সময় জাল কাগজ তৈরি করে পুরাতন মোটরসাইকেল বলে মানুষের কাছে বিক্রি করে। যিনি কেনেন তিনি চোরাই মোটরসাইকেল কি না এটাও জানতে পারেন না।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *