দেখে নিন যারা বিনামূল্যে সকল খাদ্যদ্রব্য পাবে আগামী ৫ মাস

আনলক ১-র শেষ দিনে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। করো’না নিয়েই তিনি প্রথম বক্তব্য রাখেন। ভারতের করো’না পরিস্থিতি অন্য দেশের তুলনায় ভাল। এছাড়া ভারতে মৃ’ত্যুর হার ও কম রয়েছে। লকডাউন সঠিক সময়ে নেবার ফলে কয়েক লক্ষ মানুষের প্রাণ বাঁ’চানো সম্ভব হয়েছে।

মানুষ লকডাউনের সময় অনেক নিয়মবিধি মেনে চলেছেন। কিন্তু আনলক ১-র সময় থেকে মানুষের মধ্যে গাফিলতির শুরু হয়েছে। আজ অপেক্ষাকৃত ভাবে করো’না এবং লকডাউনের মধ্যে এই নিয়ে ষষ্ঠবার জাতীর উদ্দেশ্যে ভাষণ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। উনি ভাষণে জানান, প্রধানমন্ত্রী গরীব কল্যাণ অন্ন যোজনা দীপাবলি এবং ছট পুজো পর্যন্ত দেওয়া হবে।

উনি জানান নভেম্বর মাস পর্যন্ত দেশের ৮০ কোটির বেশি গরীব ভাই বোনেদের পাঁচ কেজি গম অথবা পাঁচ কেজি চাল বিনামূল্যে দেওয়া হবে। এছাড়াও প্রতিমাসে প্রতি পরিবারকে পাঁচ মাস পর্যন্ত এক কেজি করে ডাল দেওয়া হবে।

আজ তিনি স্পষ্ট করে জানান যে প্রত্যেককে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। বিশেষ করে কনটেনমেন্ট জোনে বিশেষ কড়াকড়ি করতে হবে। এক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসনকে আরও বেশি নজর দিতে হবে। এর পাশাপাশি আজকের ভাষণে তিনি প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ যোজনার সময়সীমা বিস্তারের কথা ও বলেছেন।

গত তিন মাসে ৮০ কোটি মানুষকে বিনামূল্যে রেশন দেওয়া হয়েছে। এবার সেই বিনামূল্যে রেশন দেবার সময়সীমা বাড়িয়ে নভেম্বর পর্যন্ত করা হল। এর ফলে প্রত্যেক পরিবারের প্রতি সদস্য প্রতি মাসে ৫ কেজি চাল বা গম পাবেন। আর ১ কেজি করে ছোলা পাবেন। এর জন্য ৯০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।

এছাড়া তিনি এক দেশ এক রেশন কার্ড চালুর কথা ও বলেন। এরফলে গরিব মানুষ যারা এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে কাজের জন্য যান। তারা খুব উপকৃত হবেন বলে তিনি মনে করছেন। এর পাশাপাশি তিনি কেউ মাস্ক না পড়লে জরিমানা নেওয়ার কথাও ঘোষণা করেন। তিনি বলেন যে সম্প্রতি এক দেশের প্রধানমন্ত্রীকে মাস্ক না পড়ার জন্য ১৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ভারতেও তাই করা হোক বলে তিনি মনে করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!