সুন্দরী বউ এর অনৈতিক কাজ, অসহায় রাজমিস্ত্রি স্বামী – OnlineCityNews
Breaking News
Home / সারা দেশ / সুন্দরী বউ এর অনৈতিক কাজ, অসহায় রাজমিস্ত্রি স্বামী

সুন্দরী বউ এর অনৈতিক কাজ, অসহায় রাজমিস্ত্রি স্বামী

Advertisement

শুধু নাম নয়, তার চেহারাও পরীর মতো। কখনো উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা কখনো মহিলা বিষয়ক কর্মক’র্তা আবার কখনো সমাজসেবা কর্মক’র্তা সাজেন। মোহনীয় চাহনি দিয়ে কখনো পুরুষ, কখনো গ্রামের অবলা দরিদ্র নারী ও কি’শোরীদের ফাঁদে ফেলেন। এরপর নিজের ইচ্ছা মাফিক আদায় করেন অর্থ। এটাই লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জের প্রতারক পরী বেগমের পেশা।

আর উঠতি বয়সের যুবক, চাকরিজীবী, জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদসহ সবাইকে ফেসবুকে চ্যাটিং বা মোবাইল ফোনে কথা বলে ট্র্যাপে ফেলে প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। অন্যদিকে ফোনে কথা বলে রুমমেট করার ফাঁদে ফেলে শিকার ধরতো ওই সুন্দরী পরী। তার মন ভোলানো কথায় বহু মানুষ পা দিতেন ওই ফাঁদে।

তার ওইসব অ’পকর্মকে সামাল দেয়ার জন্য তার রয়েছে রামগঞ্জে একটি প্রভাবশালী সিন্ডিকেট। ফলে ভ’য়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না। ওই পরি বেগমের নানান প্রতারণার খবর এখন ট’ক অব দ্য রামগঞ্জে পরিণত হয়েছে।

পরীর এহেন অশালীন ও প্রতারণার কর্মকা’ণ্ডের বিচারের দাবিতে ভুক্তভোগী শিরীন আক্তার নামে এক গৃহবধূ একাধিক নারীর পক্ষে বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার রামগঞ্জ উপজে’লার নির্বাহী কর্মক’র্তা মুনতাসির জাহানের বরাবর একটি অ’ভিযোগ দায়ের করেছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পরি বেগম (প্রকাশ ফাতেমা আক্তার পরী) রামগঞ্জ পৌরসভা’র নন্দনপুর গ্রামের ইম্মত আলী ভূঁইয়া বাড়ির আলমগীর হোসেনের স্ত্রী’। স্বামী রাজমিস্ত্রি আলমগীর বেশ কয়েকবার স্ত্রী’র বেপরোয়া অ’নৈতিক কর্মকা’ণ্ডের প্রতিবাদ করেও দফায় দফায় হে’নস্তা হয়েছেন।

এর বাইরেও পরী বেগম সম্প্রতি রামগঞ্জ উপজে’লার চন্ডীপুর ইউনিয়নের বেচারাম বাড়ির শিরীন আক্তারসহ ২৩ জন দরিদ্র অসহায় নারীর কাছ থেকে উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা পরিচয় দিয়ে বয়স্কভাতা, বিধবাভাতা, প্রতিব’ন্ধীভাতা, মাতৃত্বভাতা ও নতুন ঘর করে দেয়ার নাম করে সহ’জ সরল মহিলাদের কাছ থেকে এক লক্ষ ২০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন।

এছাড়াও ওই প্রতারক পরী বেশ কয়েকদিন আগেও রামগঞ্জ পৌরসভা’র সাতারপাড়া গ্রামের মিয়া বাড়ির জেসমিন আক্তার কাছ থেকে ৩ হাজার, সুফিয়া বেগমের কাছ থেকে ৮ হাজার, একই গ্রামের মিয়ার বাড়ির সোহাগী বেগমের কাছ থেকে ১০ হাজার, নাসরিন আক্তারের কাছ থেকে ৩০ হাজার,সুমা আক্তার ৭হাজার, আকলিমা আক্তার ৭ হাজার, বাচ্চু মিয়ার কাছ থেকে ৬ হাজার সহ পার্শ্ববর্তী আবদুল করিম বেপারী বাড়ির, জয়নাল আবেদিন বেপারী বাড়ির সহ অসংখ্য নারী-পুরুষের কাছ থেকে বয়স্কভাতা, বিধবাভাতা, প্রতিব’ন্ধীভাতা, মাতৃত্বভাতা ও নতুন ঘর করে দেয়ার নাম করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন।

এ ব্যাপারে পরী বেগম জানান, আমি বি’রুদ্ধে আনীত অ’ভিযোগ মিথ্যা। শিরিন বেগম ইএনও অফিসে যে অ’ভিযোগ করেছে তাও পুরোপুরি সত্য নয়। শিরিন আমাকে মাত্র ২ হাজার ৫শ’ টাকা দিয়েছে। বাকি টাকা সে আত্মসাৎ করে আমাকে দোষারোপ করছে।

উপজে’লা সমাজসেবা কর্মক’র্তা মো. আনোয়ার হোসেন জানান, পরীর বি’রুদ্ধে প্রাথমিক ত’দন্তে এ পর্যন্ত অর্ধশতাধিক মহিলা-পুরুষের কাছ থেকে প্রতারণা করে অর্থ আত্মসাতের অ’ভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। খুব শিগগিরই বাকি ত’দন্ত শেষ করে নির্বাহী কর্মক’র্তা মহোদয়ের কাছে পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট পেশ করা হবে।

এ ব্যাপারে রামগঞ্জ উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা মুনতাসির জাহান জানান, ফাতেমা আক্তার পরীর বি’রুদ্ধে অ’ভিযোগের ভিত্তিতে ত’দন্তের জন্য সমাজসেবা কর্মক’র্তা আনোয়ার হোসেনকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। ত’দন্ত শেষে পরীর বি’রুদ্ধে বিধিমোতাবেক কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়াও তার প্রতারণার বিষয়ে আরো বিস্তারিত খোঁজ খবর নেয়া হচ্ছে।

Advertisement
Advertisement

Check Also

মোবাইল ফোন চু’রির টাকায় ২৬ বিয়ে

Advertisement Advertisement ফরিদপুরে মোবাইল ফোন চু’রির টাকা দিয়ে একে একে ২৬টি বিয়ে করার পর এক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!