জানা গেল কত কোটি টাকা দিয়ে চাঁদে জমি কিনে রেখেছিলেন সুশান্ত – OnlineCityNews

জানা গেল কত কোটি টাকা দিয়ে চাঁদে জমি কিনে রেখেছিলেন সুশান্ত

প্রয়াত সুশা’ন্ত সিং রাজ’পুত চাঁদে জমি কেনার প্রথ’ম ভারতী’য় অভি’নেতা ছিলেন। শাহরুখ ‘খানের আগে তিনি চাঁ’দের জ’মির মালিক হন। সুশা’ন্ত চাঁ’দের যে অংশ’টি কিনে’ছিল তাকে মে’য়া’র মা’স্কো’ভিয়েন্স বলা হ’য়েছিল। সুশান্ত চাঁদের সেই অংশ’টি নি’জের নামে আন্ত’র্জা’তিক চুনা’র ল্যা’ন্ডস রে’জি’স্ট্রি থেকে কিনেছি’লেন।

শুধু তাই নয়, তিনি সৌ’রজ’গতের প্রতি এত’টাই আগ্র’হী ছিলেন যে তাঁর সংগ্র’হে তিনি বিশ্বের সে’রা দূর’বীণ’গু’লির একটি ছিল। যার মা’ধ্যমে তিনি শ’নি’র আংটি’টি দেখতে’ন।বলা হয়ে থাকে চা’দে জ’মি কি’না’র জন্য তিনি কয়ে’ক হা’জার কো’টি রুপি খরচ ক’রে’ছিলেন।

গত ২৫ জুন এই জমি নথি’ভুক্তক’রণের কাজ সম্পন্ন করেছেন সুশান্ত। যদিও, কো’নওম’তেই, সেই জমি’কে নিজে’র বলে দা’বি করতে পার’বেন না অভি’নেতা। কারণ, আন্ত’র্জাতি’ক নিয়ম অ’নুযায়ী, চাঁদ সহ বি’শ্বব্র’হ্মাণ্ডের অন্য গ্রহ, উপগ্র’হ বা বস্তু’গুলো—সা’র্বিক মানব সভ্য’তার অভিন্ন ঐ’তিহ্য। ফলত, কো’নও দেশ বা ব্য’ক্তি অথ’বা সংস্থা তার ওপর কর্তৃ’ত্ব ফ’লাতে পার’বে না।

এরই মধ্যে সুশা’ন্তের ময়’না তদ’ন্তে’র রি’পোর্ট হাতে এসে’ছে। রি’পো’র্টে বলা হয়েছে আ’ত্ম’হ’ত্যা।এদিকে, কিছুদিন আগে সু’শান্ত সিং রা’জপু’তের ব্যবস্থা’পক দিশা স্যালি’য়ান একটি বহু’তল ভব’ন থেকে লা’ফিয়ে আ’ত্ম’হ’ত্যা করেছিলেন।

সুশান্ত সিং রাজ’পুত ১৯৮৬ সালের ২১ জানু’য়ারি পাটনা’য় জ’ন্মগ্র’হ’ণ করেছি’লেন। পরে তাঁর পরিবার দিল্লিতে চলে আসে। তিনি দিল্লি কলেজ অফ ই’ঞ্জি’নি’য়ারিংয়ে মেকানি’কাল ইঞ্জি’নি’য়া’রিংয়ে ভর্তি হন। তবে তার পর থেকে তিনি থি’য়ে’টা’রের দিকে ঝুঁকছেন। তিনি নাচ শিখেন। পড়া’শো’না শেষ করতে পারে’ননি তিনি।’

অভি’নয়ের তাগিদ থেকেই শেষ মেশ মুম্বা’ইয়ে চলে আসে’ন সুশান্ত। সেখানে ২০০৮ সালে প্রথম একতা কা’পুরের প্রযোজনায় ‘কিস দেশ মে হ্যাঁ মেরা দিল’ সিরিয়া’লে অভিনয় করার সুযোগ পান। সি’রিয়া’লে অল্প দি’নের মধ্যেই তাঁর চরি’ত্রটির মৃ’ত্যু’ হয়।

তবে সেখান থেকেই এক’তা কপূ’রের সঙ্গে বন্ধু’ত্ব হয়ে যায় তাঁর। সেই সূ’ত্রেই ২০০৯ সালে ‘পবি’ত্র রিস্তা’ সিরি’য়ালে মুখ্য চরি’ত্রে অভি’নয়ের সু’যো’গ পান তিনি। তার পর আর পিছন ফিরে তা’কাতে হয়’নি তাঁ’কে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *