সুশান্তের ময়নাত’দন্ত রিপোর্টে যা জানা গেল! – OnlineCityNews

সুশান্তের ময়নাত’দন্ত রিপোর্টে যা জানা গেল!

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃ’ত্যু, আত্মহ’ত্যা নাকি খু’ন? সকাল থেকেই এনিয়ে প্রশ্ন তুলছিলেন অনেকেই। এমনকি সুশান্তের পরিবারের তরফে এই মৃ’ত্যু আত্মহ’ত্যা নয় বলেই দাবি করা হয়েছে। এইসবের মাঝেই এবার সামনে এল সুশান্ত সিং রাজপুতের ময়নাত’দন্তের রিপোর্ট।

‘জনসত্তা’ ও ‘নব ভা’রত টাইম’ এ প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুসারে, সুশান্ত সিং রাজপুতের ময়নাত’দন্তের রিপোর্টে এই মৃ’ত্যুকে ‘আত্মহ’ত্যা’ বলেই উল্লেখ করা হয়েছে। জানা যাচ্ছে, ড. আরএন কুপার মিউনিসিপ্যাল হাসপাতা’লে ময়নাত’দন্ত হয়েছে সুশান্তের।

যে চিকিৎসক সুশান্তের ময়নাত’দন্ত করেছেন, তিনি জানিয়েছেন, সুশান্তের শরীরে কোনও ড্রা’গ বা বিষ রয়েছে কিনা সেটি জেজে হাসপাতা’লে পরীক্ষা করা হবে। এদিকে আরও একটি সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, মুম্বই ক্রা’ইম ব্রাঞ্চ-এর একটি টিম ইতিমধ্যেই সুশান্তের মৃ’ত্যুর ঘটনার ত’দন্তে দায়িত্ব নিয়েছে।

ত’দন্তের স্বার্থেই মুম্বই ক্রা’ইম ব্রাঞ্চ সুশান্তের ফ্ল্যাটের বিভিন্ন প্রান্ত খতিয়ে দেখছে। রবিবার সকালে সুশান্তের বাড়ির পরিচারিকারা জানিয়েছিলেন, তাঁরা সকালেও সুশান্তকে দেখেছেন। সকাল সাড়ে ৯টার সময় সুশান্ত জুস নিয়ে নিজের ঘরে ঢুকে যান, তারপর আর তিনি বের হননি।

সুশান্তের দেহের প্রাথমিক ময়নাত’দন্ত হলেও এখন পূর্ন হয়নি প্রক্রিয়া, সেই কারণে দেহ পরিবারের হাতে তুলে দিতে এখনও সময় লাগবে। গতকাল ময়ানাত’দন্তের পর কুপার হাসপাতা’লের মর্গেই রাখা ছিল সুশান্তের দেহ। আজ মুম্বাইতে সুশান্তের শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে। এরইমধ্যে পাটনা থেকে মুম্বাই পৌঁছেছেন তার পরিবারের সদস্যরা।

সুশান্ত সিং রাজপুত বলিউডে পা রাখেন ‘কাই পো চে’ সিনেমার মাধ্যমে। এরপর বেশ কয়েকটি সিনেমায় অভিনয়ের ক্ষুধা মিটিয়েছেন তিনি। ‘ছিছোড়ে’, ‘রাবতা’, ‘কেদারনাথ’ তার ক্যারিয়ারের উল্লেখযোগ্য সিনেমা।

১৯৮৬ সালের ২১ জানুয়ারি পাটনায় জন্মগ্রহণ করেন সুশান্ত সিং রাজপুত। পরবর্তীকালে দিল্লিতে চলে আসে তার পরিবার। দিল্লি কলেজ অব ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়েও ভর্তি হন। কিন্তু সেই সময় থেকেই থিয়েটারের দিকে ঝুঁকে পড়েন তিনি। নাচও শেখেন। তবে পড়াশোনা শেষ করতে পারেননি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *