যে কারণে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে কাছে টেনে নিলেন এমপি মাশরাফি – OnlineCityNews

যে কারণে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে কাছে টেনে নিলেন এমপি মাশরাফি

ন’ড়াইলের লোহাগড়া উপজে’লার ইতনা গ্রামে’র অ’ন্তঃস’ত্ত্বা ই’তি খানম অব’শে’ষে আশ্রয় খুঁ’জে পেয়েছে’ন। সোমবার (০৮ জুন) দুপুরে লোহাগ’ড়া থা’না পু’লিশের ভা’রপ্রা’প্ত কর্মক’র্তা (ওসি) সৈয়দ আ’শিকুর রহমা’নের নেতৃত্বে একদল পু’লিশ হাস’পাতাল থেকে ইতি’কে স্বামীর বাড়িতে দিয়ে আ’সেন।

নড়াইল-২ আস’নের সংসদ সদস্য ও বাং’লা’দেশ ক্রি’কেট দলের সাবেক অধি’নায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা’র নির্দে’শনায় অবশেষে স্বা’মীর বাড়ি’তে ই’তির জায়’গা হলো। ইতি খানম (২০) উপজে’লার ইতনা গ্রা’মের কাজি হারুন অর রশি’দের মেয়ে এবং একই গ্রামের বাসিন্দা তি’তাস কাজি’র স্ত্রী।

লোহাগ’ড়া থা’না পুলি’শের ভা’রপ্রাপ্ত ক’র্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আশিকু’র রহ’মান বলেন, ইতি আ’ট মা’সের অ’ন্তঃস’ত্ত্বা। তাকে এক’জন চৌ’কিদা’র (নারী) দেখভা’ল কর’বেন। আরে’কজন চৌকিদার (পুরুষ) তার খোঁ’জখ’বর রাখ’বেন। পু’লিশ তাকে কিছু খাদ্য’সাম’গ্রী দিয়েছে। স্থানীয় চেয়া’র’ম্যান আপা’তত তার বাজার খরচ দেবে’ন।

এমপি মাশরা’ফি বিন ম’র্তুজা ইতির খোঁজ’খবর রাখ’বেন এবং পাশে আছে’ন। তার কোনো খাদ্য’স’হায়তা লাগলে এমপি দেবেন ব’লেছেন। এছাড়া যেকো’নো বিপদে ইতির পাশে থা’কার আ’শ্বাস দিয়ে’ছেন তিনি। একই সঙ্গে ই’তির স’ন্তান প্রসবে’র সময়ে’র সব খরচ বহন করবে’ন এমপি মাশরাফি।

স্থানী’য় সূত্র জা’নায়, গত ১ জুন অ’ন্তঃস’ত্ত্বা স্ত্রী ইতি খা’ন’মকে নি’র্যাত’ন করে রা’স্তায় ফেলে যান স্বা’মী তি’তাস কাজি। অচে’তন হয়ে রা’স্তায় পড়ে’ছি’লেন ইতি। পরে জা’তীয় ‘জ’রুরি সেবার ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে বিষ’য়টি জা’নায় ‘স্থা’নীয় লো’কজন। খবর পে’য়ে তাকে উদ্ধার করে লো’হাগড়া উপ’জে’লা স্বাস্থ্য কম’প্লে’ক্সে ভর্তি’ করে পু’লিশ। এরপর থেকে স্বা’মী, শ্বশুর’বাড়ি কিংবা বা’বার’বাড়ির কেউ খোঁ’জ’খবর নে’য়নি ইতির।

এদিকে, ঘটনার দিন থেকে ফোন ন’ম্বর বন্ধ করে পালি’য়ে গেছেন ‘ই’তির স্বা’মী তিতাস কাজি। এ অব’স্থায় ইতি পুলি’শকে জানান স্বা’মীর বি’রু’দ্ধে মা’ম’লা করতে রা’জি নন; তিনি স্বামীর সংসা’র করতে চান। তার সি’দ্ধা’ন্ত অনুযায়ী সোম’বার বিকেলে স্বামী’র বাড়িতে ই’তিকে দিয়ে আ’সে পু’লিশ। অন্তঃস’ত্ত্বা স্ত্রীকে রা’স্তায় ফেলে গেলেন স্বামী তাই তাকে কাছে টেনে নিয়েছেন মাশরাফি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *