‘আমি অরিজিতের প্রথম পক্ষের বউ নই’, অবশেষে আসল তথ্য ফাঁস করলেন রূপরেখা – OnlineCityNews

‘আমি অরিজিতের প্রথম পক্ষের বউ নই’, অবশেষে আসল তথ্য ফাঁস করলেন রূপরেখা

বলিউড হোক বা টলিউড, অরিজিত সিং-এর গান পছন্দ নয় এমন হয়ত কেউ নেই। স’ঙ্গীত দুনিয়ার এক উজ্জ্বল নক্ষত্র তিনি। তবে অরিজিত বরাবরই নিজের ব্যক্তিগত জীবনকে ক্যামেরার প্রচার থেকে দূরেই রাখেন।

মুর্শিদাবাদের এই ছেলেটি একেবারেই মাটির মানুষ। তিনি সংবাদমাধ্যমকে এড়িয়ে চললেও তাঁর ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে সাধারণ মানুষের কৌতূহলের শেষ নেই।

২০১৪ সালে ছোটবেলার বান্ধবী কোয়েল রায়কে বিয়ে করেন অরিজিত। এর আগেও একবার বিয়ে করেছিলেন তিনি। কিন্তু সেই বিয়ে এক বছরও টেকেনি। অরিজিতের প্রথম স্ত্রী কে, এই বি’ষয়ে সেভাবে কিছু জানা যায় না।

কিন্তু বহু সংবাদমাধ্যমে এর আগে দাবী করা হয়েছে যে রিয়্যালিটি শো ‘ফেম গু’রুকুল’-এর বিজেতা রূপরেখা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স’ঙ্গে নাকি অরিজিতের প্রথম বিয়ে হয়। এমনকি, উইকিপিডিয়াতেও এমনটাই দাবী করা হয়েছে যে ২০১৩ সালে রূপরেখার স’ঙ্গে অরিজিতের বিয়ে হয়।

এবার সেই বি’ষয় নিয়ে মুখ খুললেন রূপরেখা। তিনি জানান যে, “অনেকদিন ধরেই আমি দেখছি অরিজিতের স’ঙ্গে আমা’র নাম জড়ানো হচ্ছে আমি প্রথমে গু’রুত্ব দিইনি, ভেবেছিলাম সেলিব্রিটিদের নিয়ে এটা ঘটে।

কিন্তু দিনদিন এটা বেড়ে চলেছে… আমি নিজেও অরিজিতের ভক্ত। অরিজিত কাকে প্রথমে বিয়ে করেছিলেন, তা জানার প্রয়োজন নেই আমা’র। কিন্তু আমি ওঁর প্রথম স্ত্রী নই”।

রূপরেখা এও স্পষ্টভাবে জানান যে গত ১১ বছর ধরে নলীনাক্ষ ভট্টাচার্যের স’ঙ্গে তিনি সুখে সংসার করছেন। তিনি নিজের জীবনে একবারই বিয়ে করেছেন। তিনি অরিজিতের স’ঙ্গে ‘ফেম গু’রুকুল’এ অংশ নিয়েছিলেন, ব্যস, এটুকুই।

তিনি এও জানান যে তিনি অরিজিতকে খুবই শ্র’দ্ধা করেন। তিনি অনুরোধ করেন যাতে তাঁকে জড়িয়ে অরিজিতকে নিয়ে এই কথাগু’লো আর বলা না হয়।

প্রস’ঙ্গত, ২০১০ সালে নলীনাক্ষ ভট্টাচার্যকে বিয়ে করেন রূপরেখা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যদিকে, ২০১৩ সালে প্রথম বিয়ে করেন অরিজিত সিং। এরপর ডিভোর্সের পর ২০১৪ সালে কাউকে না জানিয়ে তারাপীঠে গিয়ে ছেলেবেলার বান্ধবী কোয়েল রায়কে বিয়ে করেন অরিজিত। কোয়েলের প্রথম পক্ষের সন্তানকেও আগলে রাখেন অরিজিত। অরিজিত ও কোয়েলের দুই সন্তান রয়েছে। তিন সন্তানকে নিয়ে হাসিখুশি পরিবার তাঁর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *