বাড়ির ছাদে বা উঠোনে মাছের সাথে মুক্তা চাষ করে প্রতিমাসে কমপক্ষে ৩ লাখ টাকা করে আয়, রইলো বিস্তারিত! – OnlineCityNews
Breaking News
Home / ব্যবসা / বাড়ির ছাদে বা উঠোনে মাছের সাথে মুক্তা চাষ করে প্রতিমাসে কমপক্ষে ৩ লাখ টাকা করে আয়, রইলো বিস্তারিত!

বাড়ির ছাদে বা উঠোনে মাছের সাথে মুক্তা চাষ করে প্রতিমাসে কমপক্ষে ৩ লাখ টাকা করে আয়, রইলো বিস্তারিত!

Advertisement
Advertisement

করো’না এই আবহাওয়া দেশের অর্থনীতি একেবারে ভে-ঙ্গে প-ড়েছে । তার সাথে সাথে প্রতিদিন বেড়েই চলেছে বেকারের সংখ্যা । এমতাবস্থায় নতুন করে চাকরি পাওয়া মোটেও সহজ কাজ নয় ।

সে জন্য অনেকেই চাকরি আশা ছেড়ে দিয়ে মনোনিবেশ করেছে ব্যবসার কাজে । কিন্তু শেখানে লাগে বেশ মোটা অংকের পুঁজি । কিন্তু এমন বেশ কিছু ধরনের ব্যবসা রয়েছে যেখানে পুজি কম লাগবে কিন্তু লাভ হবে বেশি ।

আপনি নিশ্চয় ইতিমধ্যে জানতে আ-গ্রহী হয়ে পড়েছেন যে কি এমন ব্যবসা সেটি ? আপনাকে জানা বো বিস্তারিত । আমি এই মুহূর্তে যে ব্যবসা কথা বলতে চলেছি সেই ব্যবসা কথা শুনলে আপনার হয়তো অনেক অবাক হবেন ।

তার পাশাপাশি হয়তো আপনারা মুখ ঘুরিয়ে নিতে পারেন এই ব্যবসার কথা শুনে । কারন আমি এই মুহূর্তে আপনাদের সামনে মুক্ত ব্যবসা কথা বলতে চলেছি । আপনি নিশ্চয়ই ভাববেন যেখানে মুক্ত এত দামী একটা জিনিষ সেখানে ব্যবসা করতে গেলে কত মোটা অংকের পুঁজি লাগবে ?

কিন্তু বিশ্বাস করুন একদমই স্বল্প পুঁ-জি নিয়ে শুরু করা যাবে এই ব্যবসা। ঝিনুকের মধ্যে মুক্তা থাকে এবং এই মুক্ত পাওয়ার জন্য আপনাকে এখন আর সমুদ্র নয় বরং বাড়ির পুকুরে গেলেই পাওয়া যাবে ।

এই মুক্ত আপনি বাড়ির পুকুরে চাষ করতে পারেন মুক্ত । তার পাশাপাশি আপনি করতে পারেন মাছ চাষ ও । ঘটনাটি শুনে অবাক মনে হলোও এমনটা কিন্তু করে দেখিয়েছেন এক চাষী । বাংলাদেশি এক চাষী প্রথম বার বাড়ির পুকুরে এই চাষ করেন ।

প্রথমবার সফলতা পেয়ে বাণিজ্যিকভাবে মুক্তা চাষ শুরু করেন।সুজনের সফলতা দেখে ফুফাতো ভাই জনিও মুক্তা চাষ শুরু করেন। তাদের পুকুরে ইমেজ পদ্ধতি, টিস্যু প্রতিস্থাপন পদ্ধতি ও নিউক্লিয়ার্স বা গোলাকার ধরনের মুক্তা চাষ করছেন।

জানা যায়, চাষ করা একেকটি মুক্তা ৩৫০-৪০০ টাকা বিক্রি করেন সুজন। একটি ঝিনুক থেকে একবারে দুটি মুক্তা জন্ম হয়। সেই ঝিনুক দিয়ে তৈরি হয় মাছের খাবার ও হয় । জয় ফলে একসাথে একই টাকাতে দুটি চাষ হয়ে যাবে ।

সুজন হাওলাদার বলেন, ‘আমি ২০১৯ সালের প্রথমদিকে মাত্র ৭০০ ঝিনুক দিয়ে মুক্তা চাষ শুরু করি। এতে ৩৫ হাজার টাকা খরচ হয়। বছর শেষে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা বিক্রি করি। চলতি বছর পুকুরে ৬ হাজার ঝিনুকে মুক্তা চাষ চলছে। এবার ৩ লাখ টাকার মুক্তা বিক্রি হবে বলে আশা করছি।’ এই কাজে মন দিচ্ছে অনেক বেকার যুবক ।

Advertisement
Advertisement

Check Also

একসময় ছিলেন নাপিত, এখন তিনি ১৭ হাজার কোটি টাকার মালিক!

Advertisement Advertisement রমেশ বাবু। বিশ্বের সেরা ধনী নাপিত। ভারতে ধনীদের তালিকায় তার অবস্থান ৬৮ তম। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!