১১ বার হজে গিয়েছিলেন, শেষবার যাওয়ার ইচ্ছে পূর্ণ হলো না – OnlineCityNews

১১ বার হজে গিয়েছিলেন, শেষবার যাওয়ার ইচ্ছে পূর্ণ হলো না

১১ বার হজ করেছেন কিংবদন্তি অ’ভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান। ফের হজে যাওয়ার ইচ্ছা ছিল জনপ্রিয় এই অ’ভিনেতার। মক্কা ও ম’দিনার প্রেমে পাগল উল্লেখ করে এই অ’ভিনেতা বলেছিলেন, সুস্থ থাকলে ফের হজ্বে যাওয়ার ইচ্ছে রয়েছে।

কিন্তু সেটা অ’পূর্ণই থেকে গেল। বসুন্ধ’রা আবাসিক এলাকায় তার মেয়ের বাসায় বসে সাংবাদিকদের নিজেই জানিয়েছিলেন এটিএম শামসুজ্জামান।

অধ্যাপক আতিকুর রহমান বলেন, আগে দুবার উনি আমা’র অধীনে ভর্তি ছিলেন। এবার ধারণা করা হচ্ছে, তিনি স্ট্রোক করেছেন। শরীরের এক পাশ অবশ। একটি চোখের এক পাশে ভাইরাল অ্যাটাক হয়েছে। শারীরিক অবস্থা খুবই দুর্বল।

সবকিছু বিবেচনায় আমর’া ওনাকে নিউরোমেডিসিন বিভাগের অধীনে ভর্তির পরামর’্শ দিয়েছি। বর্তমানে তিনি নিউরোমেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক রফিকুল ইস’লামের অধীনে ভর্তি আছেন।

২০১৯ সালের ২৬ এপ্রিল রাতে বাসায় অ’সুস্থ হয়ে পড়েন এ টি এম শামসুজ্জামান। সেদিনও খুব শ্বা’সক’ষ্ট হচ্ছিল। সেই রাতে তাঁকে রাজধানীর গেন্ডারিয়ার আজগর আলী হাসপাতা’লে ভর্তি করা হয়।

সেখানে অ’স্ত্রোপচার করা হয়। টানা ৫০ দিন এই হাসপাতা’লে চিকিৎসা শেষে ঐ বছরেরই ১৫ জুন তাঁকে শাহবাগের ব’ঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে নেওয়া হয়। অবস্থার উন্নতি হওয়ায় তাঁকে রাজধানীর বসুন্ধ’রা আবাসিক এলাকার একটি বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়।

এর আগে ২০১৮ সালেওর ২৫ নভেম্বর আন্ত্রিক প্রতিবন্ধকতা দেখা গেলে এ টি এম শামসুজ্জামানকে জরুরি অবস্থায় ব’ঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়েছিল।

এটিএম শামসুজ্জামানের মৃ’ত্যুর গু’জব বারবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছিল। কিন্তু সে গু’জবকে পাশ কাটিয়ে দিব্যি বেঁচে ছিলেন। তবে এবার আর হলো গু’জব ছড়াল না। বিদায় নিলেন আজীবনের জন্য। জীবনাবসান ঘটল এই কিংবদন্তির।

শেষবার যখন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন, ‘তখন এই কিংবদন্তি অ’ভিনেতা বলেছিলেন, আমি ১১ বার হজ করেছি, আরো একবার অন্তত যাওয়ার ইচ্ছা আছে।’ তবে এই ইচ্ছা অ’পূর্ণই থেকে গেল। শরীরের সমর’্থন না থাকা, করো’না ভা’ইরাসের কারণে গোটা পৃথিবীর স্তব্ধ হয়ে যাওয়া- সব মিলিয়ে আর সেটা হয়ে ওঠেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *