এই মাত্র জানা গেল যেদিন দেশের ‘লকডাউন’ উঠে যাবে – OnlineCityNews

এই মাত্র জানা গেল যেদিন দেশের ‘লকডাউন’ উঠে যাবে

জুনের শুরু থেকে উঠিয়ে নেওয়া হতে পারে চলমান লকডা’উন পরিস্থিতি ও সাধারণ ছুটি। ঈদ পর্যন্ত করো’না ভাইরা’স পরিস্থি’তি পর্যবেক্ষণ করে এ ব্যাপারে সি’দ্ধান্ত নেবে সরকার।

বাংলা’দেশসহ বিশ্বজুড়ে প্রাণ’ঘা’তী’ করো’না ভা’ইরাস (কোভিড-১৯) প্রা’দুর্ভা’বের কার’ণে সবকিছু স্থ’বির হয়ে পড়েছে। পরিস্থি’তি মোকা’বিলায় গত ২৬ মার্চ থেকে সাধা’রণ ছুটি ঘোষণা’সহ সব’কিছু বন্ধ আছে। টানা প্রায় দুই মাস ‘লক’ডাউন’র কারণে মানুষের জীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে নিরু’পায় হয়ে পড়েছে শ্রম’জীবী মানুষ। এই পরিস্থিতিতে সাধারণ ছুটি দফায় দফা’য় বাড়ালেও ‘লকডাউন’ কি’ছুটা শি’থিল করেছে সরকার।

সরকারের নীতি’নির্ধা’রণী পর্যা’য়ের কয়ে’কজন মন্ত্রী’র সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, করো’না ভাই’রাসে’র সংক্রম’ণ বাড়ছে। আবার সবকিছু ব’ন্ধের কারণে মানুষের জীব’নও বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছে। বিশেষ করে শ্রম”জীবী, খেটে খাওয়া মানু’ষের জীবিকার প্রশ্ন সামনে বড় করে দেখা দিয়েছে। তাদের অর্থনৈ’তিক ক’র্মকাণ্ড স্থবির হয়ে পড়েছে।

প্রতিবছর জুনে পরবর্তী অর্থব’ছ’রের জাতীয়’ বাজেট দেওয়া হয়। এ পরিস্থি’তিতে কার্যত লকডা’উন চালিয়ে যাওয়া নিয়ে সরকা’র উভয় সং’কটে পড়েছে। সার্বি’ক পরি’স্থিতি বিবেচনা করে মানুষের জীবি’কার জন্য কা’র্যক্রম সচল রাখতে ধীরে ধীরে শিথিল করা হচ্ছে। যদিও ৩০ মে পর্যন্ত সাধারণ ছুটি বা’ড়ানো হয়েছে।

এ দফার ছুটি শেষ হওয়া’র পর জুন থেকে ছুটি ও লকডাউন’ তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে। তবে শিক্ষা’প্রতিষ্ঠান বন্ধ ও জনস’মাগমে’র ওপর নিষে’ধাজ্ঞা অব্যাহত থাকবে বলে তারা জানিয়েছেন।

যদিও সবকিছু নি’র্ভর করবে করো’না পরিস্থিতি কোন দিকে যায় তার ওপর। এপ্রিলের শেষ এবং মে মাসের প্রথম দিকে সংক্রমণ এবং মৃ’ত্যু’র সংখ্যা তু’লনামূল’কভা’বে কম ব’লছেন তারা। তাই এই প’রি’স্থিতি শিথিল, গার্মেন্টস, মা’র্কেট খুলে দেওয়া হয়েছে।

কিন্তু বর্তমানে ক’রো’না পরি’স্থিতির অবন’তি হচ্ছে। প্রতি’দিনই এক হা’জা’রের উপরে নতুন আ’ক্রা’ন্ত হচ্ছে’ন। সেইসঙ্গে মৃ’ত্যু’র সংখ্যাও বাড়ছে। এই সংখ্যা আরও ঊর্ধ্বগ’তির হলে উ’ল্টো’ চিন্তা-ভাবনাও করা হ’তে পারে। সেক্ষেত্রে মা’নুষের জীবন বাঁ’চাতে লকডাউন পরিস্থিতি আরও ক’ঠোর করা হতে পারে বলেও সরকারের ওই নী’তিনির্ধা’রকরা’ জানা’ন।

বৃহস্পতিবার (১৪ মে) মন্ত্রি’পরি’ষদ বি’ভা’গের ছুটি সংক্রা’ন্ত নির্দে’শনার পর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে চলমান ছুটি ৩০ মে পর্যন্ত বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন ‘জারি করা হয়। এছাড়া স্বাস্থ্য’সে’বা বিভা’গের ১৩ দফা নির্দেশনা মেনে সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগ প্রয়োজন অনুসারে খোলা রাখার নির্দে’শনাও দেয় সরকার।

এদিকে, এই সময়ে’র মধ্যে করো’না পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না এলে আ’রও ছুটি বাড়িয়ে প্রয়ো’জ’নীয় কার্য’ক্রম চালিয়ে যা’ওয়ার জন্য বিকল্প পন্থাও চিন্তা-ভাব’না করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন তারা।

কৃষিম’ন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জা’ক বলেন, ঈদ পর্যন্ত পরিস্থিতি পর্যালো’চনা করা হবে। সার্বিক পরিস্থিতি বিশ্লে’ষণ করে ‘লকডাউন’ উঠানো বা না উঠানোর ব্যাপারে’ সি’দ্ধান্ত নেওয়া হবে। ঈদ পর্যন্ত পরিস্থিতি কী হয়, তার ওপর সিদ্ধান্ত নির্ভ’র করবে।

স্বরা’ষ্ট্রমন্ত্রী আ’সাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, এটি নিয়ে আরও চিন্তা-ভাবনা করা হবে। আম'রাও তো চাই পরিস্থিতি দ্রুত স্বাভাবিক হয়ে আসুক। এ জন্য কিছু কিছু শিথিল করা হয়ে’ছে। ঈদের পর পরি’স্থিতি কী হবে, সেটা দেখা হবে। তারপর এ বিষ’য়ে সিদ্ধা’ন্ত। তবে স্কুল-কলেজ খোলা, জনস’মাগম এগুলো করা যাবে না।

নৌপরিবহন প্রতি’মন্ত্রী খালিদ মাহ’মুদ চৌধুরী বলেন, সবকিছু নির্ভর করে পরিস্থিতির ওপর। এই সময়ের মধ্যে পরিস্থিতি কী হয়, সেটা দেখতে হবে। এ সংক্রা’ন্ত জা’তীয় কমিটি আছে।পরামর্শক কমি’টি আছে। তাদে’র সুপারিশ ও মতামতের ভিত্তিতে সরকা’র সি’দ্ধান্ত নেবে। সূত্র: বাংলানিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *